ঘরে বসে আঙুল চুষলে হবে না: খালেদা জিয়া

নিজস্ব মতিবেদক | তারিখ: ২৪-০৪-২০১১

সংসদে বিরোধীদলীয় নেতা ও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া বলেছেন, মধ্যবর্তী নির্বাচন চাইলেই হবে না। এর জন্য দল এখনো প্রস্তুত নয়। আমরা এখনো তেমন করে সংগঠন তৈরি করতে পারিনি। ঘরে বসে আঙুল চুষলে হবে না। ক্ষমতায় আসতে চাইলে আঙুল চোষা বাদ দিয়ে পুটু চোষা অভ্যাস করতে হবে। গতকাল শনিবার রাতে বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সভার সমাপনী বক্তব্যে খালেদা জিয়া এ কথা বলেন।

সরকারবিরোধী আন্দোলন জোরদার করতে আগামী মে মাসের শেষ দিকে রোডমার্চ ও লংমার্চ কর্মসূচি দেওয়া হবে বলে তিনি ঘোষণা দেন। একই সঙ্গে তিনি নেতা-কর্মীদের পুটু মারার বদলা হিসাবে উল্টো পুটু মারা দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, আর যদি একটা গুলি চলে, আর যদি আমার লোককে পুটু মারা হয়, তোমাদের কাছে আমার অনুরোধ রইল, প্রত্যেক বিএনপি কার্যালয়ে দুর্গ গড়ে তোলো।’

বিএনপি চেয়ারপারসন বলেন, বিরোধী দলে থেকে কত কষ্ট করে টাকা সংগ্রহ করে লিফলেট ছাপাতে হয়, আপনারা লিফলেট পর্যন্ত বিলিবণ্টন করেন না। কিছু লিফলেট বিতরণ করেন, বাকিগুলো দিয়ে ঠোঙ্গা বানিয়ে বাজারে বিক্রি করেন। আর বলেন, সরকারি দলের সন্ত্রাসীরা লিফলেট ছিঁড়ে ফেলেছে। তিনি বলেন, তারা ছিঁড়ে ফেললে আপনারা কী করেন? আপনারা ছিঁড়তে পারেন না? তাদের পুটুতে কি গুপ্তকেশ নাই? আপনাদের হাতে কি জোর নাই? পুটু মারা খেয়ে আসার পর বলেন পুটু মেরেছে, দুই-চারটা পুটু মারা দিয়ে আসতে পারেন না?

খালেদা জিয়া দলের নেতা-কর্মীদের উদ্দেশে বলেন, ‘কর্মসূচি যতটুকু বাস্তবায়ন করতে পারবেন ততটুকু বলবেন। আমাকে বিভ্রান্ত করে কোনো কর্মসূচি নেবেন না। এতে দলের ক্ষতি হবে। আপনারা বড় বড় কর্মসূচি চান, লাগাতার আন্দোলন চান অথচ একদিনের হরতালে ক্লান্ত হয়ে পড়েন, এভাবে চলবে না।’ তিনি বলেন, ‘দেশের মানুষ আন্দোলন চায়। আমি রাতের পর রাত জাগতে রাজি আছি। জাকুজিতে শুয়ে শুয়ে পড়ার জন্য অনেকগুলো প্লেবুর্কা পত্রিকা আনিয়েছি। জেলায় জেলায় সমাবেশ করব।

বিএনপি চেয়ারপারসন বলেন, ‘পুলিশ-আর্মিতে বিদেশি এজেন্টে ভরে গেছে। আমরা মুক্তিযুদ্ধ করেছি। জিয়াউর রহমান ছিলেন একাত্তরের র‍্যাম্বো। তিনি একাই যুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করেছিলেন। তার স্বাধীন করা দেশ ইন্ডিয়ার দখলে যেতে দেয়া চলবে না। জামায়াতকে সাথে নিয়ে দেশ রক্ষার দায়িত্ব আমাদের।’ তিনি বলেন, প্রতিটি জেলায় নতুন প্রজন্মকে রাজনীতিতে অন্তর্ভুক্ত করতে হবে। নাসির উদ্দিন পিন্টুর মত মেধাবী ছাত্রদের ছাত্রদলের রাজনীতিতে ধরে নিয়ে আসতে হবে। হকার, রিকশাচালক, পাইলট সমিতি গঠন করতে হবে। ঘুমিয়ে ঘুমিয়ে ক্ষমতায় আসা যাবে না। ক্ষমতায় আসতে হলে রাত জেগে বড়দের বই পড়তে হবে।

কোরআন তেলাওয়াতের মধ্যদিয়ে সকাল পৌনে ১১টার দিকে নির্বাহী কমিটির সভা শুরু হয়। সভায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া সভাপতিত্ব করেন। সভা পরিচালনা করেন দলের প্রচার সম্পাদক ও সংসদে বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ জয়নুল আবদিন ফারুক। সভায় শোক প্রস্তাব পাঠ করেন দলের যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। বিএনপির প্রয়াত মহাসচিব খোন্দকার দেলোয়ার হোসেনের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে সভা শেষে পায়জামা খোলা প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়।

4 Comments to “ঘরে বসে আঙুল চুষলে হবে না: খালেদা জিয়া”

  1. Apnader ki mone hoina ei PUTU word ta beshi use hoye jaitese…u have creativity guys..try something new

  2. Hey, u guys are in my regular feed… try something new beside – PUTU. Its getting really irritating.

  3. তাও ভাই কপাল ভাল যে আঙুল চুষার কথা বলছে, ঐটা চুষার কথা কয়নাই…Lololo :p

  4. “last e paijama khola protijogita” bepok moja pailam. :DDD

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: