জামায়াতের নতুন আমির ঘোষণার সম্ভাবনা

নিজস্ব মতিবেদক

জামায়াতে ইসলামী আগামী শুক্রবার বাদ জুম্মা সংগঠনের নীতিনির্ধারণী স্তর কেন্দ্রীয় মজলিসে শূরার বৈঠক ডেকেছে। সূত্র জানিয়েছে, মজলিসের শূরার এ বৈঠকে নতুন আমির নির্বাচনসহ জামায়াতের ভবিষ্যৎ রাজনৈতিক কৌশল ও নীতিনির্ধারণী প্রশ্নে কিছু গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে।

৫৭ জন নারী সদস্যসহ ২৬৩ মজলিসে শূরা সদস্য গুরুত্বপূর্ণ এই অধিবেশনে যোগ দেবেন। গঠনতন্ত্র অনুযায়ী জামায়াতের কেন্দ্রীয় মজলিসে শূরা দলের বার্ষিক পরিকল্পনা ও বাজেট অনুমোদন করে। জামায়াত প্রধান ও তার অধীনস্থ বিভাগগুলোর পরিচালকদের জিজ্ঞাসাবাদ ও কাজকর্মের পর্যালোচনা করা হয় শূরার বৈঠকে। একই সঙ্গে দলের কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিশন গঠনও মজলিসে শূরার এখতিয়ারাধীন।

আগামী জানুয়ারি থেকে জামায়াতের নতুন আমিরের উপর দলটির পরিচালনার ভার ন্যস্ত হবে। শূরার এ বৈঠকে জামায়াতের নতুন আমির পদে অকুতোভয় মুক্তিযোদ্ধা, বাংলাদেশের রজনীকান্ত, বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকীর নির্বাচিত হবার আভাস পাওয়া গেছে। বর্তমান আমির মাওলানা খানকির পোলা মতিউর রহমান নিজামীর স্থলাভিষিক্ত হবেন তিনি।

বক্তব্য রাখছেন মাওলানা আবদুল কাদের সিদ্দিকী

মতিকণ্ঠের পক্ষ থেকে কাদের সিদ্দিকীর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি এক সংক্ষিপ্ত সাক্ষাৎকারে বলেন, যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের নামে মানুষ কোন খেলা দেখতে চায় না। যাকে যুদ্ধাপরাধী হিসাবে চিহ্নিত করা হবে তার বিরুদ্ধে সাক্ষী-প্রমাণ থাকতে হবে। যু্দ্ধাপরাধী হিসাবে যাদের উপর জুলুম করা হচ্ছে তারা সবাই ভাল মানুষ। একাত্তর সালে যারা নিয়াজী, রাও ফরমান, টিক্কার কাছে পুটু মারা খাওয়ায় ব্যস্ত ছিল তারা কিভাবে যুদ্ধাপরাধী হয়?

কাদের সিদ্দিকী আরো বলেন, আমি চাইলে আগামীবারই মন্ত্রী হতে পারি। কোনো ক্ষমতার লোভে আমি রাজনীতি করি না। আমি অন্তর থেকেই রাজনীতি বিশ্বাস করি বলেই এবাদতের মতোই রাজনীতি করি। বাংলাদেশে একটা দলই এবাদতের মতো রাজনীতি করে। তিনি বলেন, জামায়াতে ইসলামীর রাজনীতি বন্ধের পাঁয়তারা চলছে। পৃথিবী যতদিন থাকবে জামায়াতে ইসলামীর রাজনীতি থাকবে, বাংলাদেশে তো থাকবেই। এটি কেউ বন্ধ করতে পারবে না।

কাদের সিদ্দিকী প্রধানমন্ত্রী সম্পর্কে বলেন, আমি শেখ হাসিনাকে চিনি, তিনি পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়েন। যারা বলে তিনি মদ খান তারা না জেনেই মিথ্যা কথা বলেন, আমি কাদের সিদ্দিকী বলতে পারি শেখ হাসিনা মদ ধরে দেখা দূরে থাক, কোন দিন মদের বোতল দেখেননি, এমনকি টেলিভিশনেও মদের বোতল দেখেননি।  তিনি আরো বলেন, আমার মায়ের পর হাসিনাই আমাকে ১৫ বছর মায়ের আদরে লালন করেছে।

১৯৪৭ সালে জন্ম নেওয়া শেখ হাসিনার পক্ষে ১৯৪৮ সালে জন্ম নেওয়া কাদের সিদ্দিকীকে মায়ের আদরে লালন করা সম্ভব কি না? এ প্রশ্নের জবাবে কাদের সিদ্দিকী বলেন, তুনাক তুনাক তুন তুনাক তুনাক তুন তুনাক তুনাক তুন তা রা রা,  তুনাক তুনাক তুন তুনাক তুনাক তুন তুনাক তুনাক তুন তা রা রা।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: