সুরঞ্জিত সেনগুপ্তকে সোনার নৌকা উপহার

সুনামগঞ্জ ও দিরাই মতিনিধি | তারিখ: ২৪-১২-২০১১

সুনামগঞ্জের দিরাইয়ে গতকাল শুক্রবার রেলমন্ত্রী সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তাঁকে একটি সোনার নৌকা উপহার দিয়েছেন দিরাই পৌরসভার মেয়র আজিজুর রহমান। মন্ত্রী হওয়ার পর সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত গতকাল শুক্রবার প্রথম তাঁর নির্বাচনী এলাকা সুনামগঞ্জের দিরাই-শাল্লায় আসেন। এ জন্য উপজেলা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে স্থানীয় বিএডিসি মাঠে তাঁকে গণসংবর্ধনা দেওয়া হয়। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে একপর্যায়ে লন্ডনপ্রবাসী পৌর মেয়র আজিজুর রহমান রেলমন্ত্রী সুরঞ্জিত সেনগুপ্তকে সোনার নৌকা উপহার দেন।

পৌর মেয়র আজিজুর রহমান তার বক্তব্যে বলেন, আমার যদি ক্ষমতা থাকত তাহলে দিরাইয়ের সবকিছু সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের নামে দিয়ে দিতাম। কিন্তু আমার সেই ক্ষমতা নাই। তাই আমি আমার ছেলের নাম সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত রাখলাম। আশা করি সে বড় হলে দিরাইয়ের সবকিছু নিজের নামে নিয়ে নেবে।

রেলমন্ত্রী সুরঞ্জিত সেনগুপ্তকে সোনার নৌকা উপহার দেওয়ার ঘটনায় ক্ষুদ্ধ হয়েছেন নৌ পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান। আজ দুপুরে তার কার্যালয়ে মতিবেদকের কাছে ক্ষুদ্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন তিনি। তিনি দাবি করেন তার অনুমতি ছাড়া বাংলাদেশে নৌকা চালানোর অধিকার কারো নেই। শাজাহান খান ক্ষুদ্ধ স্বরে বলেন, রেলমন্ত্রী উপহার হিসাবে পাবেন সোনার রেলগাড়ি, তাকে কেন নৌকা উপহার দেওয়া হবে? রেলমন্ত্রী নৌ পরিবহনের কি বুজেন?

শাজাহান খান দাবি করেন সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত অবৈধ উপায়ে প্রচুর অর্থ উপার্জন করেছেন। তিন বলেন, উপহার হিসাবে দেওয়া নৌকাটি কেনার জন্য সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত মেয়র আজিজুর রহমানকে ৫ লাখ টাকা দিয়েছেন। অবৈধ উপায় বলতে কি বুঝাচ্ছেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত  পাহাড়তলী প্রকাশনী থেকে সবিতাভাবির গল্পের বই প্রকাশ করে অবৈধ উপায়ে প্রচুর অর্থ উপার্জন করেছেন। তিনি বলেন, সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত ও রসময় গুপ্তের নামের শেষাংশের মিল খেয়াল করলে যে কেউ তার কথার সত্যতা অনুভব করতে পারবেন।

এদিকে নৌ পরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খানের বক্তব্যর তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন বিশিষ্ট লেখক, সম্পাদক, টিভি উপস্থাপক, চাটার্ড একাউনটেন্ট ও যায়যায়দিন পত্রিকার সাবেক সম্পাদক শফিক রেহমান। মতিকণ্ঠ সম্পাদক বরাবর পাঠানো ইমেইলে তিনি বলেন, তিনিই প্রথম রসময় গুপ্ত ছদ্মনামে বাংলা ভাষায় গুপ্ত সাহিত্যের প্রচলন করেছিলেন। সবিতাভাবির গল্পের বইগুলোর প্রচ্ছদ ও অলংকরণের জন্য অনেক কষ্ট করে সুদূর লন্ডন থেকে বড়দের ছবি সংগ্রহ করতেন তিনি। তাই তাঁর কাজের ক্রেডিট অন্য কাউকে দেওয়া হলে তিনি বরদাস্ত করবেন না। শফিক রেহমান দাবি করেছেন তাঁর দেখাদেখি পরবর্তীতে অনেকেই রসময় গুপ্ত নাম নিয়ে সবিতাভাবির গল্প প্রকাশ করলেও তার লেখা গল্পগুলো সবচেয়ে বেশি রসময়।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: