Archive for April 7th, 2012

April 7, 2012

আল্লাহর আইন চাই, সক্ষম লোকের শাসন চাই

বিশেষ মতিবেদক

রংপুরে এক জনসভায় ভাষন দিতে গিয়ে সাবেক স্বৈরাচার ও পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, আল্লাহর আইন চাই, সক্ষম লোকের শাসন চাই।

এরশাদ ভাষনে বলেন, শেখ হাসিনা নির্বাচনের আগে আমাকে ওয়াদা করেছিল, ক্ষমতায় গিয়ে আমার নামে সব মামলা তুলে দিবে। কিন্তু সে কথা রাখেনি। সে একটি অভিশাপ। আমি তার ছলনায় ভুলব না, কাজ নেই আর আমার ভালবেসে। আমি আর মহাজোটে থাকব না। আমি একাই মহাজোট গড়ে তুলব।

এরশাদ আবেগঘন কণ্ঠে বলেন, আমি রাষ্ট্রপতি ছিলাম। হেলিকপ্টারে চড়ে নামাজ পড়তে যেতাম। পেন্টের চেইন না লাগিয়ে জনসভায় ভাষন দিতাম। নায়িকা গায়িকা সচিবের বৌদের ঘরে ডাকতাম। অথচ আজ আমি সামান্য একজন এমপি। আমি জাতীয় পার্টির পাপিয়া পান্ডে। শেখ হাসিনার কাছে আমার প্রশ্ন, এই কি আমার প্রাপ্য?

তিনি বলেন, নারীর শাসন আমরা গত দুই দশক ধরে দেখছি। এই বাইশ বছরের মধ্যে শুধু দুই বছর একটু ভাল শাসন হয়েছে? কোন দুই বছর? যখন সেনাবাহিনী ক্ষমতায় ছিল। বাকি বিশ বছর আমাদের অশান্তি ছিল। আমার নাতি নাতনী যারা আজ বক্তৃতা শুনতে এসেছ, তোমরা জেনে রেখ, এই দেশে দরকার ডান্ডার সরকার। হাসিনার ডান্ডা নাই, খালেদারও ডান্ডা নাই।

ইতিহাসের পুনরাবৃত্তি

পল্লীবন্ধু বলেন, সক্ষম একজন পুরুষের হাতে দেশ চালানর ভার দিতে হবে। যে ইচ্ছামত দেশকে ডান্ডার উপর রাখতে পারবে। আমি একজন সক্ষম পুরুষ। আমার ডান্ডা আছে। আমার বিজয় টেবলেটও আছে। আমি যখন খুশি অনলাইনে যেতে পারি। যতক্ষন খুশি অনলাইনে থাকতে পারি। বিশ্বাস না হলে মু্ন্নী সাহাকে জিজ্ঞাসা করে দেখ।

এরশাদ দাবী করেন, আগামী নির্বাচনে তাকে রাষ্ট্রপতি নির্বাচন করে রাষ্ট্রপতির শাসন বেবস্থা ফিরিয়ে আনতে হবে। তিনি বলেন, সংসদে শুধু গালাগালি হয়। শুধু মারামারি হয়। সেখানে ভালবাসা নাই, আছে ছলনা। তাই সংসদী শাসন বেবস্থা রদ করতে হবে।

সক্ষম পুরুষের হাতিয়ার

এক পৃথক সংবাদ সম্মেলনে এরশাদের প্রাক্তন স্ত্রী বিদিশা বলেন, এরশাদ বিজয় টেবলেটের দাপটে মাটিতে পা রাখতে পারছেন না। তিনি এরশাদকে উদ্দেশ করে বলেন, কুকুরের লেজ বিজয় টেবলেট দিয়ে সোজা করা যায় না।

%d bloggers like this: