সাঈদ এস্কেন্দারের মৃত্যু নিয়ে তর্কের ঝড়

নিজস্ব মতিবেদক

নিউ ইয়র্কের এক সম্ভ্রান্ত হাসপাতালে সাঈদ এস্কেন্দারের মৃত্যুর খবর দেশে ছড়িয়ে পড়ার পর তর্কের ঝড় উঠেছে সর্বত্র। তার মৃত্যুর জন্য রাজনীতিবীদগন একে অন্যকে দায়ী করছেন।

থিম্ফু মতিনিধি সুত্রে জানা যায়, গতকাল রাতে থিম্ফুর এক সম্ভ্রান্ত হটেলে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সদ্য বৌদ্ধ ধর্ম গ্রহনকারী ও ধর্ম বেবসায়ী আল-লামা জোকাই লামা বলেন, জাতিসংঘের কাজে শেখ হাসিনা নিউ ইয়র্ক যাওয়ার কিছু ক্ষনের মধ্যেই সাঈদ এস্কেন্দার ইনতেকাল করেন। এ থেকে প্রমানিত হয়, শেখ হাসিনা একটি কুফা।

জোকাই লামার বক্তব্যের প্রতিবাদে তাতক্ষনিক প্রতিবাদ জানিয়ে সংবাদ সম্মেলন ডাকেন গত বছর ইসলাম ধর্ম গ্রহনকারিনী হলিউডি সুপার ষ্টার আঞ্জুমান আরা জলি। জলি বলেন, বৃহত্তর জামায়াতে ইসলামীর বিএনপি শাখার মহিলা আমীর বেগম খালেদা জিয়া গুলশানে সাঈদ এস্কেন্দারের প্রাসাদপম বাড়িটিতে ভাড়া থাকেন। কিন্তু ভাড়া পরিশোধ করেন নাই। গত কয়েক বছরে কুটি কুটি টেকা বাড়ি ভাড়া বাকি পড়ার শোক সামলাতে না পেরে অকালে আমাদের ছেড়ে চলে গেছেন বৃহত্তর জামায়াতে ইসলামীর মিলিটারী শাখার আমীর সাঈদ এস্কেন্দার।

উপমহাদেশের ইসলামী আন্দোলনের অগ্র পুরুষ ও গৃহবন্দী ইসলামী নেতা মুফতি ফজলুল হক আমিনী সাঈদ এস্কেন্দারের মৃত্যুর জন্য তথ্য মন্ত্রী হাসানুল হক ইনুকে দায়ী করে বলেন, ইনু জাসদের নেতা ও শেখ হাসিনার মন্ত্রী। আর সবাই জানে জাসদের লোকজনের নিশানা খারাপ। তারা কাক মারতে গিয়ে বক মেরে ফেলে। হাসানুল হক ইনু মন্ত্রী হওয়ার জন্য গত এক বছর ধরে রোজ সকালে খালেদা জিয়াকে মনে মনে মাইনাস করে আসছেন। কিন্তু তার নিশানা খারাপ হওয়ায় সেই বদদুয়ার বাতাস লেগেছে সাঈদ এস্কেন্দারের গায়ে। আর তাতেই তিনি মাত্র ৫৯ বছর বয়সে আল্লাহর পেয়ারা হলেন।

মুফতি আমিনীর বক্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়ে মন্ত্রী ইনু বলেন, আমি ৭৫ সালে জিয়াউর রহমানকে উদ্ধার না করলে সাঈদ এস্কেন্দার রুটি ভাজি বিক্রি করে পেট চালাইত। আমার কারনেই সে আজ কুটি কুটি ডলারের মালিক হিসাবে মৃত্যু বরন করেছে।

হায়াত মউত আল্লাহর হাতে উল্লেখ করে ইনু বলেন, মুফতি আমিনী বেশী কথা বললে আমি তার বড় বোনদের মনে মনে মাইনাস করা শুরু করব।

সাঈদ এস্কেন্দারের মৃত্যুতে গভীর শোক বেক্ত করে বৃহত্তর জামায়াতে ইসলামীর বিএনপি শাখার মহিলা আমীরের নায়েবে খাস মোসাদ্দেক আলী ফালু এক শোক বার্তায় বলেন, তিনি আমার আপন ভাই না হলেও ভাইয়ের মত ছিলেন। তিনি আমার এক বিশেষ প্রকারের ভাই।

3 Comments to “সাঈদ এস্কেন্দারের মৃত্যু নিয়ে তর্কের ঝড়”

  1. motiknther sarcasm onek mojar hoi. But ekjn mrito manuske ki fazlamir urdhe rakha jeto na?? Mrito manus nunnotomo respect er dabidar.

  2. মানুষ মরে গেলেই সম্মান পাওয়ার যোগ্য হয় না। সম্মান পেতে হলে বেঁচে থাকতেই প্রশংসাযোগ্য কাজ করে যেতে হয়। মানুষের মৃত্যু হয়, কৃতকর্মের না।

  3. জাসদের লোকজনের নিশানা খারাপ, they saved Zia, but Zia killed their Col. Taher. They should not have saved Zia.
    if they did not have done it, there would have not been any BNP and the rise of Jamati, hefazoti

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: