অভাগা যেদিকে চায়, সাগর শুকায়ে যায়: পল্লীবন্ধু

নিজস্ব মতিবেদক

শাহবাগের গন জাগরনের কান্ডারীদের প্রতি বিষোদগার করে সাবেক স্বৈরাচার রাস্ট্রপতি ও পল্লীবন্ধু ও জাতীয় পার্টির চেয়ারমেন আলহাজ্জ্ব হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, অভাগা যেদিকে চায়, সাগর শুকায়ে যায়।

বৃহষ্পতিবার মধ্যরাতে নিজ বাসভবনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

সংবাদ সম্মেলনে পল্লীবন্ধু ছিলেন বিষন্ন। তিনি একটি লাল হাফপেন্ট ও সবুজ ফতুয়া পরিধান করে ছিলেন। তার গলায় একটি বেগুনী রুমাল বাধা ছিল।

অশ্রুরুদ্ধ কণ্ঠে এরশাদ বলেন, এতকাল ছিলেম ভাল, আজ আমার এ কি হল, এ বেথা সইতে পারি না। না না। এ বেথা সইতে পারি না।

নিজের কষ্টের কথা বেখ্যা করে পল্লীবন্ধু বলেন, আমি রাজনীতির প্রয়োজনে দুটি সপ্তাহ আমেরিকায় ছিলাম। গত ৫ ফেব্রুয়ারী কাদের মোল্লার রায়ের পরই আমি বুঝতে পেরেছিলাম, সামনে দিনকাল খারাপ। বাংগালী ভালর ভাল মন্দের যম। তারা এইবার একটা হুল্লা চিল্লা করবে। শেষবার যখন বাংগালীকে রাস্তায় দেখেছি, কাপড় পরিবর্তন করে কুলাতে পারিনি। ভেজা কাপড়েই তারা আমায় বংগভবন হতে চেংদলা করে নিয়ে কারাগাড়ে নিক্ষেপ করে। তাই এইবার কুন রিক্সের মধ্যে না গিয়ে আমি রাজনীতির প্রয়োজনে আমেরিকা চলে যাই। মারামারি কাটাকাটি যা হয় ঢাকায় হবে।

আবেগঘন কণ্ঠে এরশাদ বলেন, কিন্তু আমেরিকায় যাওয়া ছিল আমার জীবনের সর্বাপেক্ষা বৃহত ভুল। তারা আমায় কুন খাতির করে নাই। যখন গদি ছিল, তারা আমায় থুতনিতে হাত দিয়ে আদর করেছে। এইবার গেলাম, কুন পাত্তা পেলাম না। অভাগা যেদিকে চায়, সাগর শুকায়ে যায়।

আমাকেও সাথে নিও, নেবে ত আমায়, বল নেবে ত আমায়: এরশাদ

অশ্রু মুছে পল্লীবন্ধু বলেন, দুটি সপ্তাহ আমি এখানে সেখানে রাজনীতির প্রয়োজনে যাতায়াত করেছি। লাস ভেগাস, মিয়ামি, হলিউড। কেউ ভালবেসে দুটি কথা বলেনি। আর এদিকে আমার বেক্তিগত সহকারী সুনীল শুভ রায় ঢাকা থেকে মুঠোফোন করে আমায় বলল, সার আপনি ঢাকায় চলে আসুন, শাহবাগে রেপ হচ্ছে, ড্রাগস হচ্ছে।

বক্তব্যের এ পর্যায়ে এরশাদ কেদে ফেলেন।

কাদতে কাদতে পল্লীবন্ধু বলেন, সুনীল শুভ রায়ের ফোন পাওয়া মাত্রই টিকেট খরিদ করে আমি দেশে ফিরে এলাম। আর এই শাহবাগের তরুনের দল আমি আসতে না আসতেই শাহবাগ বন্ধ করে দিল। তারা প্রত্যেকে এক একটি অভিশাপ।

ট্রান্সকম টিসুতে অশ্রু মুছে এরশাদ বলেন, দুই সপ্তাহ তারা শাহবাগে রেপ করল, ড্রাগস করল, আর আমি আসতেই সব বন্ধ। তারা কি মনে করে, আমি কিছু বুঝি না?

অবিলম্বে শাহবাগ পুনরায় চালু করার আহ্বান জানিয়ে এরশাদ কঠোর হুশিয়ারী জানিয়ে বলেন, কেউ পাবে, কেউ পাবে না, তা হবে না, তা হবে না।

5 Comments to “অভাগা যেদিকে চায়, সাগর শুকায়ে যায়: পল্লীবন্ধু”

  1. অদ্ভূদ

  2. দৈনিক ভীমরতি কণ্ঠ।এটা পড়ার মতো পত্রিকা হলো?

  3. হালার বিচিতে পাথর বান্দি দেওন লাগবো 😛

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: