আহমদিনেজাদকে পাথর নিক্ষেপ করে হত্যার দাবীতে মুখরিত তেহরান

তেহরান মতিনিধি

ভেনেজুয়েলার রাস্ট্রপতি মরহুম হুগো চাভেজের মৃত্যু পরবর্তী অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে তার মা এলিনা ফৃয়াসকে আলিংগন করেছেন ইরানের রাস্ট্রপতি মাহমুদ আহমদিনেজাদ।

আর এরই প্রতিক্রিয়ায় ক্ষোভে ফেটে পড়েছে তেহরান।

সুযোগ সন্ধানী আহমদিনেজাদ

এ ছবি ফাঁস হয়ে যাওয়ার পর তেহরানে লক্ষ লক্ষ নারী পুরুষ রাজপথে নেমে আসে। উত্তেজিত জনতা এ সময় আহমদিনেজাদকে কোমর পর্যন্ত গর্তে পুঁতে পাথর নিক্ষেপ করে হত্যার দাবী করে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক বিক্ষোভকারী বলেন, লম্পট আহমদিনেজাদের শাস্তি চাই। কেউ পাবে, কেউ পাবে না, তা হবে না তা হবে না।

বিক্ষোভে অংশ নেওয়া তরুণ রেজা শাহ নাদিরজাদা মতিনিধিকে বলেন, আমার মহল্লায় শত শত সুন্দরী খালাম্মা বসবাস করেন। ইসলামের কথা ভেবে, শরীয়ার কথা ভেবে, সর্বোপরি পুলিশের ধোলাইয়ের কথা ভেবে তাদের আলিংগন করা থেকে নিজেকে বহু কষ্টে বিরত রাখি। আর আহমদিনেজাদ কি না হুগো চাভেজের মাকে আলিংগন করে। আহমদিনেজাদকে পাথর নিক্ষেপ করে হত্যা করতে হবে। আমি নিজে সবার জন্য প্রয়োজনে পাথর টোকায়ে আনব।

তেহরানে বিক্ষুব্ধ জনতা

ধর্মীয় নেতা আয়াতুল্লাহ মোহাম্মদ ইয়াজদী বিক্ষোভ সমাবেশে এক বক্তৃতায় বলেন, কেউ কেউ বলছে, আহমদিনেজাদ সান্তনা দেওয়ার জন্য এলিনা খানমকে আলিংগন করেছে। আলিংগন করে সান্তনা দেওয়া যায়? আলিংগন করে দেওয়া যায় শুধু নিষিদ্ধ মজা। আহমদিনেজাদ এই নিষিদ্ধ মজা লুটেপুটে খাওয়ার জন্যই এলিনা খানমের সংগে ঈদের কোলাকুলি করেছে। ইসলামে এই ধরনের চপলতা কঠোর ভাবে নিষিদ্ধ। আহমদিনেজাদ দেশে ফিরলে আমরা তাকে পাথর নিক্ষেপ করে হত্যা করার বেপারে আরও আলোচনা করব।

আবেগঘন কণ্ঠে ইয়াজদী বলেন, আহমদিনেজাদ এম এ জি ফালু হইতে চায়। সালা রাশকেল বাশটাড।

এদিকে ভেনেজুয়েলায় আহমদিনেজাদের সংগে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, হোয়াইল ইন রোম বিহেভ লাইক রোমানিয়ানস। ভেনেজুয়েলার মাটিতে আমি পাড়া দিতেই বুড়ি ছুড়ি সকলেই আমায় তুলতুলে আলিংগন করছে। আগার ফেরদৌস বরোয়ে জমিন অস্ত, হমিন অস্ত হমিন অস্ত হমিন অস্ত।

ইরানে কুন মজা নাই: আহমদিনেজাদ

ভেনেজুয়েলায় রাজনৈতিক আশ্রয় প্রার্থনা করে রাস্ট্রপতি নির্বাচনে অংশ নেওয়ার অভিলাশ বেক্ত করে আহমদিনেজাদ বলেন, ইরান একটি অভিশাপ। মর্দা বেটারা ওখানে অদ্ভুদ।

3 Comments to “আহমদিনেজাদকে পাথর নিক্ষেপ করে হত্যার দাবীতে মুখরিত তেহরান”

  1. ভাল হয়নি।

  2. যখন উদ্দেশ্য প্রণোদিত লেখা লেখেন তখন জোর করে হিউমার বানানোর চেষ্টাটা পরিষ্কার বোঝাই যায়। যেমন ব্যালান্স রাখার জন্য মাঝে মাঝে আওয়ামী লীগ বা শেখ হাসিনাকে পচিয়ে যে পোস্টগুলো করেন, সে গুলো সাধারণত ঠিক ‘মতিকন্ঠিয়’ হয়ে উঠতে পারে না।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: