গভীর রাতে খালেদার উপর হামলা

নিজস্ব মতিবেদক

গভীর রাতে বৃহত্তর জামায়াতে ইসলামীর বিএনপি শাখার মহিলা আমীর দেশনেত্রী আপোষহীন নেত্রী মাদারে গনতন্ত্র বেগম খালেদা জিয়ার হামলা ঘটেছে।

অজ্ঞাত পরিচয় কতিপয় বেক্তি গভীর রাতে মহিলা আমীরের গুলশানস্থ কার্যালয় লক্ষ করে গুলি নিক্ষেপ করে পলায়ন করে।

আজ নয়া পল্টনে দলীয় কার্যালয়ের সামনে বিএনপি শাখার ভাঁড়প্রাপ্ত নায়েবে আমীর ও জাতীয়তাবাদী শক্তির কমপ্লান বয় মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এ আক্রমনের জন্য বাকশালী সরকারকে দায়ী করে তীব্র ক্ষোভ বেক্ত করেন।

ফখা ইবনে চখা বলেন, আমরা গভীর রাতে মহিলা আমীরের কার্যালয়ে গোপন মিটিং এ মগ্ন ছিলাম। আতকা শুনলাম ঠুশ ঠুশ ঠুশ শব্দ। উকিলে আমীর মওদুদ আহমদ আমায় বললেন, ফখা ভাই, ইহা কিসের শব্দ? আমি বললাম, মনে হয় গুলি। উকিলে আমীর বললেন, গুলির শব্দ ঠুশ ঠুশ ঠুশ হয় না ফখা ভাই, হয় ঠাশ ঠাশ ঠাশ। আমি বললাম, না মওদুদ ভাই, উহা গুলি তাতে কুন সন্দেহ নাই। মওদুদ আহমদ বললেন, আরে ভাই ছুটকাল হতে গুলাগুলির মধ্যে দিয়া বড় হইলাম, ইহা গুলি নহে ককটেল। আমি বললাম, ছুটকালে আপনি গুছলের সময় কান পরিষ্কার করেন নাই।

আবেগঘন কণ্ঠে ফখা বলেন, তর্কের এই পর্যায়ে মহিলা আমীর বললেন, শাট আপ ইউ ডেম ফুল। ইহা গুলি। কুন রাশকেল আমায় গুলি করল? নিশ্চয়ই বাকশাল। হরতাল হরতাল।

বাকশালী সরকারের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করে ফখরুল বলেন, তারপর মেডাম হরতাল দিলেন। বললেন, আপনারা শিবিরের ভাইদের গিয়া বলেন তারা যেন মাঠে থাকে। শিবিরের সভাপতি দেলোয়ারের জন্য ত বিএনপি শাখা হরতাল দিতে পারে না। তাই আমরা গুলির জন্য হরতাল দিলাম। আমাদের সংগ্রাম গুল্লির সংগ্রাম। দেলোয়ারের সংগে আমাদের কুন সম্পর্ক নাই।

বিএনপি শাখা ক্রমশ শিবিরের উপর নির্ভরশীল হয়ে পড়ছে কি না, সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে ফখা ইবনে চখা উত্তেজিত হয়ে বলেন, সব কাম কি আমরা একা করব নাকি? আমরা বাজারে গিয়া মহিষের মাংস যখন খরিদ করি, সেই মাংস কি নিজে কাটি নাকি কসাই কাটিয়া দেয়? আমাদের মাংস ক্ষমতা, শিবির আমাদের কসাই। আমাদের মাংস আমরা কারে দিয়া কাটাব সেটা আমাদের বেপার।

মহিলা আমীরের উপর গুলির ঘটনার জন্য বাকশাল সরকার কেন দায়ী, এ প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল বলেন, বাকশাল না করলে কে করবে? বিএনপি শাখা আক্রমনে আর্জেস গ্রেনেড বেবহার করে। গুলিমুলির উপর আমাদের ভরসা নাই। আর আমাদের সকল আর্জেস গ্রেনেড আমরা দুই হাজার চার সালে খরচ করিয়া ফেলছি। কাজেই ইহা বাকশালেরই কাম।

গভীর রাতে খালেদার উপর হামলার প্রতিবাদ জানিয়ে পৃথক সংবাদ সম্মেলনে মহিলা আমীরের নায়েবে খাস ও জাতীয়তাবাদী শক্তির সর্বাধিনায়ক এম এ জি ফালু বলেন, সব কাজ সবার করা উচিত নয়।

2 Comments to “গভীর রাতে খালেদার উপর হামলা”

  1. ভাই কি সব লেখেন? সব বগাস সব রাবিশ…

  2. নটীর পোলাগো হরতাল করতে আর যার তাঁর লগে বিয়া বইতে সময় লাগে না মোটেই। বিগত বছরগুলোতে দেখলাম কিভাবে জামাতের লগে বিয়া বইছে, সময় সময় আবার হোমো এরশাদের সাথেও নাকি বিয়া বইতে চায়। শোনা গেছে, হোমো এরশাদ নাকি বিয়ার পইগাম পাঠাইছে। অহন সেই বিয়ার খাওনে আমরা কি সত্য সত্য দাওয়াত পামু ?? এইটা জনগনের মনের গভীরে এক বিরাট প্রশ্ন।

    যাউগ্যা, বিএনপি আর জামাতের ঘরে তো একটা পোলাও হইছে হুনলাম। পোলাডার নাম নাকি রাখছে হেফাজত। খবরে প্রকাশ এই হেফাজত নাকি আসলে একটা মাইয়া। আবার কেউ কেউ কয় কোনডাই না। যাউগ্যা। আমাগোর দাবী, আর হরতাল মরতাল না দিয়া নামাজ কালাম পড়েন। দ্যাশের উন্নতি ক্যামতে হইব তাই লইয়া চিন্তা ভাবনা শুরু করেন। নিজেরা তো নিজেগর গায়ে রাজাকারের কালার লাগায়া ঘুরতাছেন। অহন জনগণ বিএনপি (বাংলাদেশের নোংরা পার্টী) আসলে কি চায় টা বুইজা গ্যাছে।

    সময় আর বেশী নাইক্যা। যা কামাইছিলেন তারাতারি খাইয়া রেডি থাইকেন। পরে আর ঐ কামাইয়ের খাওন ভাগ্যে জুটব না।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: