ফরবেশ আমায় দরবেশ বলেছে: বাবুনগরী

নিউ ইয়র্ক মতিনিধি

সদ্য গঠিত রাজনৈতিক দল বাবুনাগরিক শক্তির প্রতিষ্ঠাতা আমীর, বাংলাদেশের একমাত্র নোবেল বিজয়ী অর্থনীতীবীদ ও গ্রামীন বেংকের বিতাড়িত মালিক ড. মুহম্মদ ইউনূস বাবুনগরী বলেছেন, ফরবেশ আমায় দরবেশ বলেছে। আমি খুশি।

গত বুধবার জাতিসংঘ ভবনে এক জমকালো অনুষ্ঠানে মহাবিশ্বের সর্বাপেক্ষা বিখ্যেত ফরবেশ মেগাজিনের আজীবন সম্মাননা পেয়ে ইউনূস এ কথা বলেন।

আর অধ্যাপক বাবুনগরী একা নন, তাঁর সঙ্গে ধনকুবের ওয়ারেন বাফেটও আজীবন সম্মাননা পুরস্কারে ভুষিত হন।

সম্মাননা জানানর পুর্বে বাবুনগরী ও ওয়ারেন বাফেটের কাজের প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন ফরবেশ মেগাজিনের আমীর আল্লামা স্টিভ ফরবেশ। তিনি বলেন, ওয়ারেন বাফেট ও ইউনূস বাবুনগরী আমার দেখা সবচেয়ে বস দুইজন লোক। ওয়ারেন বাফেট ফাটকা বাজারে টাটকা বিনিয়গ করে বিলিয়ন বিলিয়ন ডলার রুজগার করেছেন। তিনি একজন ধনকুবের। আর বাবুনগরী গরিবের বাজারে শতে তিরিশ টেকা মতান্তরে চল্লিশ টেকা সুদে ঋন দিয়ে টেকাটুকা কামাই করে প্রচুর পরিমানে টিনের চাল ও নোবেল পদক অর্জন করেছেন। তিনি একজন ঋনকুবের। তাই এই দুইজনরে সম্মাননা দিয়া আমি ধনাত্মক ও ঋনাত্মক উভয় প্রকার কুবেরকে মেনেজ করলাম। লাইক এ বস।

বনর সংগে বাবুনগরী

অনুষ্ঠানে অধ্যাপক বাবুনগরীকে পরিচয় করিয়ে দেন সংগীত শিল্পী বন। এ সময় অধ্যাপক ইউনূস বনর সংগে একটি আলোক চিত্র তুলেন। তিনি রসিকতা করে বনকে বলেন, এত খাটাখাটি করলা কিন্তু শান্তিতে নোবেল পাইলা না রে বন। লেদার জেকেট দিয়া কাম হবে না, শান্তিতে নোবেল চাইলে নিজের গায়ের লেদারটি মুটা কর।

এরপর তিনি বনকে নোবেল শান্তি পুরস্কার লাভের উপর কিছু মুল্যবান টিপস দেন।

অনুষ্ঠানে বক্তব্যে ইউনূস বলেন, আমি নোবেল পাইলাম, প্রেসিডেন্টের ফ্রিডম মেডেল পাইলাম, কংগ্রেসের সোনা পাইলাম, আর আজ ফরবেশ আমায় দরবেশ ডাকল। আমি খুশি। কিন্তু ঐ শেখের বেটী যে আমায় ঘেটী ধরিয়া গ্রামীন হইতে ভাগাইয়া দিল ইস কো কুছ প্রতিকার কি নাহি মিলেগা? এর প্রতিশুধ নিতে না পারলে এইসব মেডেলে কুন কাম হইত না। রাইতের কালে এই কথা মনে হইলে রাগে দুঃখে আমার আর ঘুম হয় না। শিরায় শিরায় লাগে টান শিরায় শিরায়।

বার্মার বিরধী দলীয় মহিলা আমীর অং সান সু চির প্রতি ওপেন চেলেঞ্জ দিয়ে বাবুনগরী বলেন, ওবামার ক্ষনিক লালসা তাড়িত চুম্বনের জোরে তুমি আমায় হেলাফেলা কর। দেখ আজ আমি ফরবেশের আজীবন সম্মাননা পাইলাম। ওরে মগ মহারানী, রোহিংগা রাজের সংগে অকারন ফুটানী কর না। তুমি লুটপাট হয়ে যাবে।

অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অন্যান্য ধনকুবেরদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, আপনাদের রুজগারের টেন পারসেন্ট আমার সামাজিক বেবসা ফান্ডে দান করুন। বাবুনাগরিক শক্তির হাত শক্ত করুন। অসামাজিক বেবসা ত অনেক করলেন, এইবার আসেন সামাজিক বেবসা করি। আই লাইক টু মুভিট মুভিট।

টেন পারসেন্টের ধারনা তারেক জিয়ার কাছ থেকে পেয়েছেন কি না, সাংবাদিকদের এ প্রশ্নের সরাসরি উত্তর না দিয়ে হাসতে হাসতে ইউনূস বলেন, ফাও কথা না বলিয়া দাড়াইয়া বিপুল হাততালি দেও সালা ঘোচু।

7 Comments to “ফরবেশ আমায় দরবেশ বলেছে: বাবুনগরী”

  1. বেকুবের দল…আকামে সময় নষ্ট করস কেন?

  2. motikontho er admin or editor ke পেলে কোনো একদিন ভালো করে এক কাপ চা বানায়ে খাওয়াব ,হাসতে হাসতে চেয়ার থেকে পড়ে গেলাম ।

  3. ফাও কথা না বলিয়া দাড়াইয়া বিপুল হাততালি দেও সালা ঘোচু। 😀

  4. কিন্তু ঐ শেখের বেটী যে আমায় ঘেটী ধরিয়া গ্রামীন হইতে ভাগাইয়া দিল ….. এর পর উর্দু মারা … হাহাপগে।
    সেইরকম epic

  5. তিনি রসিকতা করে বনকে বলেন, এত খাটাখাটি করলা কিন্তু শান্তিতে নোবেল পাইলা না রে বন। লেদার জেকেট দিয়া কাম হবে না, শান্তিতে নোবেল চাইলে নিজের গায়ের লেদারটি মুটা কর। heheheheheheh

  6. I like to move it move it

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: