একটা বই লিখ আমার জন্য: তারেক

লনডন মতিনিধি

অবশেষে সব জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে বৃহত্তর জামায়াতে ইসলামীর বিএনপি শাখার আওলাদে আমীর, জাতীয়তাবাদী শক্তির ভবিষ্যত মালিক ও শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের যোগ্য উত্তরসুরী তরুন নেতৃত্ব বড় গনতন্ত্র তারেক জিয়ার ‘রাজনৈতিক ভাবনা’ নিয়ে ১৭ জন লেখকের একটি নিবন্ধ সঙ্কলন প্রকাশিত হয়েছে লনডনে।

বইটির মোড়ক উন্মোচন করেন পাবলিক পলিসি নিয়ে কাজ করা ‘রেস পাবলিকার’ ফেলো এবং অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটির লাস কাসাস ইনস্টিটিউট অব এথিকস, হিউমেন রাইটস অ্যান্ড শোশাল জাস্টিসের সাবেক পরিচালক ফ্রান্সিস ডেভিস।

তারেকের বই উদভোদন করলেন শেতাংগ পন্ডিত

প্রধান আলোচকের বক্তৃতায় ডেভিস বলেন, আমি অবসর সময়ে ফ্রিলেন্সার ডট কমে টুকিটাকি কাম করি। সেদিন দেখি একটি বিজ্ঞাপন। তৃতীয় বিশ্বের নির্যাতিত নিপীড়ীত লনডনে নির্বাসিত নেতারে লইয়া লিখিত বই উদভোদন করার জন্য শেতাংগ পন্ডিত আবশ্যক। আমি সংগে সংগে মুঠোফোন মারলাম। মুঠোফোন ধরলেন নিপীড়ীত নেতার ঘনিষ্ঠ সুত্র। তিনি বললেন, হাদিয়া এক হাজার পাউন্ড। আমি হাসিয়া বললাম, ঠুমি গুলিসঠানের রেঠ লনডনে কিরুপে চালাইঠেছ? এক হাজার পাউন্ড ঠ কুন ঠেকাই নহে। সে আমায় বলল, সাহেব বেশী মুলামুলি করিও না, তুমাদের অক্সফোর্ডের আরেক মাষ্টার নয়শ পাউন্ডে রাজি। আমি তখন তাকে বলিলাম, আচ্ছা এক ডাম নয়শট পঞ্চাশ পাউন্ড। বাংলাদেশে ফিরিয়া গেলে আল্লাহ ঠুমাডের এর সট্টুর গুন ফিরাইয়া ডিবেন। তারা তখন রাজি হইল। আমিও আজ ছুটকুট লাগাইয়া বই উদভোদনে আসিয়া পড়লাম।

আবেগঘন কণ্ঠে ডেভিস বলেন, বাংলাদেশের উন্নতি হবে কি না আমি জানি না, কিন্তু তারেক জিয়ার যে উন্নতি হবে তাতে আমার কুন সন্দেহ নাই। নগদ নয়শত পঞ্চাশ পাউন্ড আমার হাতে তুলিয়া দেওয়ার কিছুক্ষন পর আসিয়া সে টেন পারসেন্ট বাবদ পচানব্বই পাউন্ড আবার লইয়া গিয়াছে। আপনারা এই বইটি খরিদ করুন। আশা করি পড়িয়া মজা পাইবেন। বিফলে মুল্য ফিরত।

ডেভিস ছাড়াও ইয়ং ফাউন্ডেশনের পরিচালক ডেভিড এডগার ও ইউরোপীয় পার্লামেন্টের সাবেক সদস্য জন ক্লেটন এই অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন।

জন ক্লেটন বলেন, অনেকেই মনে করেন রাজনীতিবিদরা জনগণের কথার গুরুত্ব দেন না। কিন্তু তারেক রহমান ভিন্ন ধরনের রাজনীতিবিদ। তিনি বাংলাদেশের গ্রামে গ্রামে ঘুরে মানুষের উদ্বেগ আশংকার কথা শুনেছেন। টেন পারসেন্ট দিতে যাদের সমস্যা হচ্ছিল, তাদের নাম তিনি লেপটপে লিপিবদ্ধ করেছেন। এরপর আর সেই সব গ্রামের মানুষের কুন উদ্বেগ আশংকার কথা জানা যায় নাই। ইন ফেক্ট তাদের কুন খুজই আর পাওয়া যায় নাই।

ডেভিড এডগার বলেন, ক্লেটনের নেয় আমিও ফ্রিলেন্সার ডট কমে কাম করি। তারেক জিয়া ডেভিসকে দিয়াছেন নয়শত পঞ্চাশ পাউন্ড, ক্লেটনকে দিয়াছেন চারশত পঞ্চাশ পাউন্ড, আমায় দিয়াছেন তিনশত পাউন্ড। তিনশত পাউন্ডে এক ঘন্টার বেশী অবস্থান করা সম্ভব নয়। আমার সময় শেষ, আমি গেলাম। আল্লাহ হাফেজ।

এই বইয়ের ১৭ জন লেখকের মধ্যে দুজন বিদেশী। এরা হলেন- ব্রিটিশ কলাম লেখক ডেভিড নিকলসন ও ফ্রিল্যান্স সাংবাদিক জেমস স্মিথ। নিকলসন ও স্মিথও ফ্রিলেন্সার ডট কমে কার্যাদেশ পেয়ে যোগাযোগ করেন বলে ঘনিষ্ঠ সুত্র জানায়।

লেখকদের মধ্যে বিএনপি শাখার জ্যেষ্ঠ নায়েব উকিলে আমীর বেরিষ্টার মওদুদ আহমদ, সাবেক স্পিকার জমিরউদ্দিন সরকার, সাংবাদিকে আমীর শওকত মাহমুদ, অধ্যাপক মুনিরুজ্জামান মিয়াও রয়েছেন। তারেক জিয়া তাদের কোনরুপ টাকা পরিশোধ করেননি বলে ঘনিষ্ঠ সুত্র জানায়।

3 Comments to “একটা বই লিখ আমার জন্য: তারেক”

  1. ফ্রিল্যান্সার.কম টাকে বাদ দিয়ে লেখা যেত না? আমরা যারা সত্যি সত্যি অনলাইনে কাজ করি তাদের জন্য ব্যাপারটা অপমানজনক!

  2. চরম লাগলো, জটিল কয়েকটা লাইন-
    ১) ঠুমি গুলিসঠানের রেঠ লনডনে কিরুপে চালাইঠেছ? বাংলাদেশে ফিরিয়া গেলে আল্লাহ ঠুমাডের এর সট্টুর গুন ফিরাইয়া ডিবেন।
    ২) আবেগঘন কণ্ঠে ডেভিস বলেন, বাংলাদেশের উন্নতি হবে কি না আমি জানি না, কিন্তু তারেক জিয়ার যে উন্নতি হবে তাতে আমার কুন সন্দেহ নাই। নগদ নয়শত পঞ্চাশ পাউন্ড আমার হাতে তুলিয়া দেওয়ার কিছুক্ষন পর আসিয়া সে টেন পারসেন্ট বাবদ পচানব্বই পাউন্ড আবার লইয়া গিয়াছে।
    ৩) তারেক রহমান ভিন্ন ধরনের রাজনীতিবিদ। তিনি বাংলাদেশের গ্রামে গ্রামে ঘুরে মানুষের উদ্বেগ আশংকার কথা শুনেছেন। টেন পারসেন্ট দিতে যাদের সমস্যা হচ্ছিল, তাদের নাম তিনি লেপটপে লিপিবদ্ধ করেছেন। এরপর আর সেই সব গ্রামের মানুষের কুন উদ্বেগ আশংকার কথা জানা যায় নাই। ইন ফেক্ট তাদের কুন খুজই আর পাওয়া যায় নাই।

  3. সংশোধনীঃ “শেতাংগ পণ্ডিত” হবে না, হবে “গোরা আলেম”।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: