বাকশাল মারতে ওয়াশিংটনে বাবুনগরী

নিজস্ব মতিবেদক

বাংলাদেশে বাকশালের দুঃশাসনের বিরুদ্ধে জেহাদের ডাক দিয়ে ওয়াশিংটনে মার্কিন যুক্ত রাস্ট্রের রাজনীতী বিষয়ক সহকারী পর রাস্ট্র মন্ত্রী ওয়েন্ডি শারমিনের সঙ্গে বৈঠক করেছেন সদ্য গঠিত রাজনৈতিক দল বাবুনাগরিক শক্তির আমীর, বাংলাদেশের একমাত্র নোবেল বিজয়ী অর্থনীতীবীদ ও গ্রামীন বেংকের বিতাড়িত মালিক ড. মুহম্মদ ইউনূস বাবুনগরী।

মংগল বার ওয়াশিংটন সময় সকাল সাড়ে ১১টায় পর রাস্ট্র দপ্তরে এই গোপন বৈঠক হয়।

বৈঠক শেষে ওয়েন্ডি শারমিন এ বেপারে সাংবাদিকদের কিছু না জানিয়ে লাঞ্চে চলে যান।

কিন্তু সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাব দিতে উপস্থিত হন ইউনূস বাবুনগরী।

চড় দিয়া বাকশালের পুটু ফাটাব: বাবুনগরী

উত্তেজিত কণ্ঠে বাবুনগরী বলেন, বাকশালের বেয়াদবী আর সহ্য করব না। সরকারের এত বড় সাহস, তারা বাবুনগরী সেন্টারকে ধমক দেয়। এইবার আমি ওয়াশিংটন হতে সপ্তম নৌবহর খালাস করাইয়া তারপর দেশে রওনা হব। এয়ারুপ্লেনে চড়িয়া দেশে ফিরার দিন শেষ, এইবার বিমানবাহী জাহাজে চড়িয়া চট্টগ্রাম বন্দরে পা ফেলিব। সাবধান শেখের বেটী, ইউ জাষ্ট অয়েট। পদ্মা সেতু বন্দ করছি, জিএসপি সুবিধা বন্দ করছি, এখন সপ্তম নৌবহর দিয়া তুমার মুখ বন্দ করব।

আবেগঘন কণ্ঠে বাবুনগরী বলেন, মার্কিন যুক্ত রাস্ট্রের সহকারী দীপু মনি মিস ওয়েন্ডি শারমিন আমার সংগে আছেন। আমি এখন আর দুনিয়ার কাউকে ডরাই না। সপ্তম নৌবহর লইয়া বখতিয়ার খলজির নেয় আমি সুধা সদনের দরজায় বোমা ফালাব। তারপর অন্য কথা।

হিলারি রডহাম ক্লিনটনের পরিবর্তে পর রাস্ট্র মন্ত্রী হিসাবে জন কেরির দায়িত্ব গ্রহনের বেপারে অসন্তষ প্রকাশ করে ইউনূস বলেন, কেরি কুন কামেরই নহে। আজ হিলারি থাকলে আমায় ওয়েন্ডি শারমিনের সংগে মুলামুলি করতে হইত না। ওয়েন্ডি শারমিন গ্রামীন বেংকের মালিক দরিদ্র নারীদের নেয় সহজ সরল নহে, তার পেটে পেটে শুদু জিলাপির পেছ। আমি যতই তারে বলি সপ্তম নৌবহর পাঠা তেলের টেকা আমি দিমু, সে ততই বলে, কাকা মাথাটা ঠাণ্ডা করেন। আরে সালি ঘোচু, এখন একশনের সময়, ঠাণ্ডা মাথা দিয়া কি কাম?

বাবুনগরীর প্রশ্নত্তর শেষ হওয়ার পর ওয়েন্ডি শারমিন লাঞ্চ করে ফিরে এসে সাংবাদিকদের মুখমুখি হন। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বাংলাদেশে সপ্তম নৌবহর পাঠানর কুন পরিকল্পনা আমৃকার নাই।

আবেগঘন কণ্ঠে শারমিন বলেন, আমরা দেশ বুঝিয়া যুদ্ধর কায়দা ঠিক করি। ইরাকে আমরা সেনা বাহিনী পাঠাইছি, আফগানিস্তানেও পাঠাইছি। কিন্তু বাংলাদেশের সংগে লড়াইয়ে আমাদের অস্ত্র বাবুনগরী। সে একাই এক ডিভিশন সোলদারের সমান ক্ষতি সাধন করতে পারবে। লাইক এ বস।

9 Comments to “বাকশাল মারতে ওয়াশিংটনে বাবুনগরী”

  1. Ei article porar por-o jodi Yunus er bodh na hoy, afsos… Ki kore, young polapain gula re yunus center e kaaj korte dey, ethics er ki shikhay ke jane kintu eita thik bacchha gula’r motive corrupt kore feley… Fazil lok.

  2. নাম গ্রামীনচুরি অথবা গ্রামীনপুরী দিলে মনে হয় যুৎসই হতো।

  3. অসাধারণ! অপূর্ব! দারুন বিশ্লেষণ! ঠিক যেন এই পরজীবী কীটদের আসল মনের কথা। দেশী আরে বিদেশী বনিক, গরিবের রক্তশোষক, ভন্ড মানব-হিতৈষী, আর আজ্ঞাবাহী চাকরদের স্বরুপ উন্মোচনে মতিকন্ঠ যেন দিনকে দিন আরো বেশি মুন্সিয়ানার পরিচয় দিচেছ। ইন্টারনেট যুগের এই দুনিয়ায় এরকম বহু মতিকন্ঠ আজ আমাদের চাই।

  4. ওস্তাদ, আম্নেগো লেহা অনেকটাই ৭১ সালের স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের চরমপত্রের মত মনে হয়। চালায়া যান, you are our only hope!

  5. this kind of website should kick out from net.

  6. @shiraj nel bal chiro boshe boshe ei website chk kortaso ken?

  7. হাসতে হাসতে অজ্ঞান হয়া গেলাম….. চরম লিখছেন… 😀

  8. This is a Busterd page

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: