ফেরারী পাখীরা কুলায় ফিরে না: মুফতি ইজাহার

নিজস্ব মতিবেদক

আইন শৃংখলা রক্ষা বাহিনীর প্রতি বৃদ্ধাংগুষ্ঠী প্রদর্শন করে নেজামে ইসলামীর আমীর মুফতি ইজাহারুল ইসলাম বলেছেন, পুলিশের নাকের সামনে দিয়া বাইর হইয়া পলায়ন করিলাম, আর এখন পুলিশ আমায় আদাড়ে বাদাড়ে সন্ধান করিয়া মরে। এইসব খেলা বাদ দেও। ফেরারী পাখীরা কুলায় ফিরে না।

আজ নিখিল বাংলাদেশ হোটেল মালিক সমিতির সভাপতি ও ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী এডভকেট সাহারা খাতুনের মালিকানাধীন দি এমপেরিয়াল হোটেল এন্ড গেষ্ট হাউসের কক্ষে আয়জিত সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন মুফতি ইজাহার।

মুফতি ইজাহার বলেন, মাদ্রাসার ঘর বাষ্ট করেছে ইহাই বড় কথা। গ্রেনেড ফুটিয়া বাষ্ট করল নাকি লেপটপ ফাটিয়া বাষ্ট করল, তাহা কুন বড় বিষয় নহে। কিন্তু রেব পুলিশের আচরন দেখিলে মনে হয়, উহারা জীবনে কখন গ্রেনেড বাষ্ট করিতে দেখে নাই। আবার মামলা দিয়াছে আমার ও আমার মাসুম মুজাহিদ পুত্র হারুনের নামে। মাদ্রাসার গরিব পুলাপান থাকতে আমরা গ্রেনেড বান্ধিব কুন দুঃখে?

আবেগঘন কণ্ঠে মুফতি ইজাহার বলেন, গতকাল সাংবাদিকদের সংগে কথাবার্তা বিনিয়ম করতেছিলাম। কিন্তুক পুলিশের আচরন দেখিয়া মনে হল উহারা আমায় গ্রেফতার করিলেও করিতে পারে। আমি তখন বিষ্ফোরনে ছিটকাইয়া পড়া একটি মার্বেল টুকাইয়া এস্তেনজা করিতে গেলাম। তাহার পর মার্বেলটিকে কুলুখ আকারে বেবহার করিয়া বাইর হইলাম। দায়িত্ব রত পুলিশটিকে বলিলাম, আমায় এখন চল্লিশ কদম হাটিতে হইবেক। বাধা দিলে আমার ধর্মীয় অনুভুতিতে আঘাত লাগিবেক। তাহারা তখন আমায় হাটিতে দিল। মাশা আল্লাহ, আটতিরিশ কদম হাটিতেই একটি রিকশা পাইয়া গেলাম। তার পর পলাইয়া আসিয়া উঠিলাম এমপেরিয়ালে, আলহামদুলিল্লাহ।


সুখের লাগিয়া গ্রেনেড বাধিনু, অনলে পুড়িয়া গেল

 

হাসতে হাসতে মুফতি ইজাহার বলেন, আপাতত আত্মগুপনে আছি। গ্রেনেড বান্ধিতে গিয়া যাহারা আহত হইয়াছে, তাদের উত্তম রুপে চিকিতসা করিয়া সুস্থ করার দায়িত্ব সরকারের। সরকারের টেকায় তাহাদের চিকিতসা হইবার পর উহাদের জামিন করাইবার দায়িত্ব বৃহত্তর জামায়াতের উকিলে আমীর বেরিষ্টার রাজ্জাকের। এইসব গ্রেফতার টেফতার আমাদের লাইনে দুদভাত। আমারেও ত গ্রেফতার করছিল। তাতে কি লাভ হইছে? আবার ত জামিন লইয়া বাইর হইয়া উন্নতমানের গ্রেনেড উতপাদন করিতেছি। আগার ফেরদৌস বরোয়ে জমিন আস্ত, জামিন আস্ত, জামিন আস্ত, জামিন আস্ত।

অবিলম্বে ১৮ দলীয় জোটকে ক্ষমতা গ্রহনের আহ্বান জানিয়ে মুফতি ইজাহার বলেন, চার দলীয় জোটের সময় সিংগারা সমুছার নেয় আর্জেস গ্রেনেড মিলত। এখন কিনা নিজের গ্রেনেড নিজেরেই বানাইয়া লইতে হয়। আমরা কি এই বাংলাদেশ চেয়েছিলাম?

5 Comments to “ফেরারী পাখীরা কুলায় ফিরে না: মুফতি ইজাহার”

  1. আমায় এখন চল্লিশ কদম হাটিতে হইবেক। বাধা দিলে আমার ধর্মীয় অনুভুতিতে আঘাত লাগিবেক।

  2. অবিলম্বে ১৮ দলীয় জোটকে ক্ষমতা গ্রহনের আহ্বান জানিয়ে মুফতি ইজাহার বলেন, চার দলীয় জোটের সময় সিংগারা সমুছার নেয় আর্জেস গ্রেনেড মিলত। এখন কিনা নিজের গ্রেনেড নিজেরেই বানাইয়া লইতে হয়। আমরা কি এই বাংলাদেশ চেয়েছিলাম?

  3. সুখের লাগিয়া গ্রেনেড বাধিনু, অনলে পুড়িয়া গেল

  4. কিছুই বলার নাই।

  5. শালা শুয়রের জাতরে লাইথ্যা তার ফাকিস্টান পাঠাইয়া দিতে হবে।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: