গ্রামীন বেংককে জাদুঘরে পাঠাইতে হবে: ইউনূস

নিজস্ব মতিবেদক

জাতীয় পার্টির আমীর ও সাবেক স্বৈরাচার রহস্যপুরুষ পল্লীবন্ধু আলহাজ্জ হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ কতৃক প্রনীত গ্রামীন বেংক অধ্যাদেশ ১৯৮৩ বাতিল পুর্বক গ্রামীন বেংক আইন ২০১৩ প্রনয়ন করায় বাকশালী সরকারের বিরুদ্ধে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করে সদ্য গঠিত রাজনৈতিক দল বাবুনাগরিক শক্তির আমীর, বাংলাদেশের একমাত্র নোবেল বিজয়ী অর্থনীতীবীদ ও গ্রামীন বেংকের বিতাড়িত মালিক কায়েদে নোবেল ড. মুহম্মদ ইউনূস বাবুনগরী বলেছেন, এখন গ্রামীন বেংককে জাদুঘরে পাঠাইতে হবে।

আজ মিরপুরের কাশিমবাজারে অবস্থিত কুঠিবাড়ির গদি গ্রামীন বেংক ভবনের একাংশ জবর দখল করে স্থাপিত ‘বাবুনগরী সেন্টারে’ আয়জিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন বাবুনগরী।

কায়েদে নোবেল বলেন, বাকশালী সরকার গ্রামীন বেংককে পকেটে ভরার সকল বেবস্থা ফাইনেল করল। এরশাদ সারের মাধ্যমে এই বেংক যখন আমি প্রতিষ্ঠা করি, তখন আমাদের মধ্যে চুক্তি ছিল, সরকার এই বেংক বিষয়ে কুন কথা কবে না। ৯টা গরীব নারী আর ৩টা আমলারে দিয়া এই বেংকের সব কলকাঠি আমি নাড়ব। এরশাদ সার কুন আপত্তি করেন নাই। আল্লাহ তাকে বেহেস্তে নশিব করুন।

আবেগঘন কণ্ঠে বাবুনগরী বলেন, কিন্তু চিরদিন কাহারও যায় না সমান। গনতন্ত্র নামক এক ভয়ানক বেধিতে ৯১ সালে দেশ আচ্ছন্ন হইল। এরশাদ সারের মত ভাল মানুষকে কারাগারে নিক্ষেপ করা হইল। সেইদিন হতেই এই দেশে মানীর মান বারবার ভুলুণ্ঠিত হইতেছে। যাই হক, আমি গেলাম সাইফুর রহমান সারের কাছে। বললাম সার গ আমার গ্রামীন বেংকে হাত দিয়েন না। তিনি আমায় বললেন, কুন চিন্তা নাই বাবুনগরী। তুমি চালাইয়া যাও।

কান্নাবিজড়িত কণ্ঠে ইউনূস বলেন, আমি চালাইতে লাগলুম। গ্রামীন বেংকের গরীব নারীদের মুলা দেখাইয়া গ্রামীন ফুনের মালিক হইলুম। নোবেল পাইলুম। কংগ্রেসের সোনা, প্রেসিডেন্টের ফৃডম মেডেল, ফরবেশ মেগাজিনের দরবেশ খেতাব, সবই একে একে পাইলুম। কিন্তু সকলই পন্ড করিল বাকশালের অভিশাপ শেখের বেটী। সে আমায় ঘেটী ধরিয়া গ্রামীন বেংক হতে বিতাড়িত করিল।


আইন গাইন ফাকফ

গ্রামীন বেংক ধ্বংস হয়ে গেছে উল্লেখ করে কায়েদে নোবেল বলেন, এখন বেংকের সকল হিসাব কিতাব বাংলাদেশ বেংকের নিকট জমা দিতে হবে। ইহা কেমন বিচার? বাংলাদেশ বেংকের নিকট গ্রামীন বেংকের হিসাব জমা দিলে এই বেংক টিকিয়া থাকবে কিরুপে? এতদিন যে গরীব নারীর মুলা দেখাইয়া ইধার কা মাল উধার করতুম, তাহার হিসাব বাংলাদেশ বেংকের নিকট জমা দিলে ত জেলের ভাত জেলের ডাইল দিয়া খাইতে হবে।

নির্বাচনের মাধ্যমে গ্রামীন বেংকের পরিচালক নির্ধারনের তীব্র সমালচনা করে বাবুনগরী বলেন, আগে আমার পছন্দ মত নয়খান গরীব নারীরে আনিয়া গদিতে বসাইয়া দিতাম। তারা কয়েক হাজার টেকা পাইত, মিটিং পিছু ফি পাইত। ইহার লালচে উহারা আমার সব কথায় জি সার জি সার করত। এখন সেই সুযুগ আর রহিল না। ফেসিবাদী বাকশাল গনতন্ত্র কায়েম করিয়া এরশাদ সারকে হঠাইয়া এই দেশটারে ধ্বংস করছে, এখন উহারা আমাদের শেষ ভরসা, আশার শেষ প্রদীপ গ্রামীন বেংকেও গনতন্ত্র চালু করল।

স্বৈরাচারের অধ্যাদেশ বাতিল করে সংসদের আইন পাশের পর গ্রামীন বেংক সফলভাবে চললে নিজের বদনামের সম্ভাবনার কথা উল্লেখ করে ইউনূস বলেন, এখন যদি গ্রামীন বেংক সুষ্ঠুভাবে চলে, সবাই আমার জারিজুরি বুঝিয়া ফেলবে। অতএব এখন বেংকটিকে জাদুঘরে পাঠাতে হবে। আর এক মুহুর্তও গ্রামীন বেংক চলতে পারে না।

গ্রামীন বেংকের সকল কর্মীকে হাতে অস্ত্র তুলে নেওয়ার আহোভান জানিয়ে বাবুনগরী বলেন, ভিভা লা রেভোলুশিওন, হে মাকারেনা।

6 Comments to “গ্রামীন বেংককে জাদুঘরে পাঠাইতে হবে: ইউনূস”

  1. আইন গাইন ফাকফ

  2. ق ف غ ع
    LMFAO

  3. আরেকটা তুফান পোস্ট! সাবাস মতি-কাকু।
    চালায়া যান। মতি-পাঠকরা আছে আপনার আসে পাশে!

  4. bapok bapok…..

  5. শালা জাদুঘরে তোর যাওয়ার টাইম হইছে। সব জেনারেশন দেখুক বানচোত কাহাকে বলে।

  6. বাবুনগরী আমাদের আরবি শেখানো শুরু করেছে।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: