বাজারে আসছে ‘বিজয় জোট’

নিজস্ব মতিবেদক

বৃহত্তর জামায়াতে ইসলাম ও বাকশাল, উভয় বৃহত রাজনৈতিক শক্তিকে ‘অভিশাপ’ উল্লেখ করে সাবেক স্বৈরাচার রাস্ট্রপতি ও পল্লীবন্ধু রহস্যপুরুষ আলহাজ্জ জেনারেল হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, আর কুন অভিশাপের খেদমত খাটব না। বাজারে আসবে আমাদিগের নতুন জোট, ‘বিজয় জোট’।

শুক্রবার বাদ জুম্মা নিজ বাসভবনে আয়জিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষনা দেন পল্লীবন্ধু।

সংবাদ সম্মেলনে এরশাদ বলেন, জীবনে অনেক কিছু দেখেছি। কিন্তু বৃহত্তর জামায়াত ও বাকশালের নেয় বৃহত অভিশাপ দেখি নাই। উহাদের কারনেই দেশে আজ এত দুঃখ, এত কান্না, এত জ্বালাও পোড়াও। আমি আর ইহাদের খেদমত খাটব না। নিজেই নিজের জোট গড়ব।

আবেগঘন কণ্ঠে পল্লীবন্ধু বলেন, নয়টি বতসর স্বৈরাচার আছিলাম। কঠর হাতে ছাত্র পিটাইছি, কুমল হাতে মধ্যবয়স্কা নারীদের আদর করেছি। কুমলে কঠরে মিশান ছিল আমার অন্তর। এইসব করতে গিয়া কিছু ভুলচুক যে হয় নাই, তা না। কিন্তু তাই বলিয়া আদালতে মামলার উপর মামলা দেওয়ার কি কুন দরকার আছিল?

এ সময় সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ঘেঁটুনাগরিক শক্তির আমীর ঘেঁটুপুত্র কাদেরা নিজের গলা হতে গামছা খুলে এগিয়ে দিলে এরশাদ তাতে অশ্রু মুছেন।

বড় দুই দলের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করে এরশাদ বলেন, দুই দলই আমায় মুলা দেখায়, বলে আস এরশাদ, তুমায় তিন প্রহরের বিল দেখাব, রাস্ট্রপতি বানাব। আরে নাদের আলীর বাচ্চারা, আর কবে আমায় তিন প্রহরের বিল দেখাইবা তুমরা? তুমরা কবে পুনরায় আমায় রাস্ট্রপতি বানাইবা, তার জন্য আমি বসিয়া থাকব না। এই দেখ নিজেই নিজের জোট গঠন করলাম। সামনের ইলেকশনে আমাদের জোট ক্ষমতায় গিয়া সরকার গঠন করবে। তখন আমি আবার রাস্ট্রপতি হব। জিনাত মশাররফ, নাশীদ কামাল, শাকিলা জাফর, তুমরা জামাকাপড় ইস্ত্রী করা শুরু কর।


শুরু হল গেম অফ গদি

বিকল্প ধারার আমীর ডাক্তার বদরুদ্দুজা চৌধুরী, ঘেঁটুনাগরিক শক্তির আমীর কাদের সিদ্দিকী, গনফোরামের আমীর ডাক্তার কামাল হোসেন ও জাসদের আমীর আসম আবদুর রবের সংগে জাতীয় পার্টির মিলনে উতপন্ন জোটকে ‘বিজয় জোট’ নাম দিয়ে পল্লীবন্ধু বলেন, আমরা কুন দলের সংখ্যা উল্লেখ করিয়া জোটের নাম রাখায় বিশ্বাসী নহি। ১৪ দলীয় ১৮ দলীয় এইসব কুন ভদ্র জোটের নাম হতে পারে না। রাজনীতীতে শেষ কথা বলিয়া কিছু নাই, তাই যে কুন মুহুর্তে জোটে দলের সংখ্যা পাল্টাইতে পারে। তাই আমাদের জোটের নাম ‘বিজয় জোট’।

বিজয় জোটের সংগে বিজয় টেবলেটের কোন সম্পর্ক আছে কিনা, এমন প্রশ্নের সরাসরি উত্তর না দিয়ে পল্লীবন্ধু হাসতে হাসতে বলেন, আমাদের জোটের আমীরগনের বয়স ত কম হইল না।

‘বিজয় জোট’ উপলক্ষে জোটের শিজিল ও মট উদ্ভোদন করে এরশাদ বলেন, হাউস পল্লীবন্ধুই বাংলাদেশের গেম অফ গদিতে সর্বাপেক্ষা শক্তিশালী হাউসে পরিনত হবে।

‘বিজয় জোটে’ সদ্য গঠিত রাজনৈতিক দল বাবুনাগরিক শক্তির আমীর, বাংলাদেশের একমাত্র নোবেল বিজয়ী অর্থনীতীবীদ ও গ্রামীন বেংকের বিতাড়িত মালিক কায়েদে নোবেল ‘অর্থনীতীর সানি লিওনি’ ড. মুহম্মদ ইউনূস বাবুনগরী যোগ দিবেন কিনা, এ প্রশ্নের জবাবে এরশাদ বলেন, উনি আসতে চাইলে আমি বাধা দিব না। তবে জোটের নাম ‘বিজয় জোট’ই ফাইনেল, ইহা পাল্টাইয়া ‘শক্তি জোট’ হবে না।

2 Comments to “বাজারে আসছে ‘বিজয় জোট’”

  1. বিজয় জোটের সংগে বিজয় টেবলেটের কোন সম্পর্ক আছে কিনা, এমন প্রশ্নের সরাসরি উত্তর না দিয়ে পল্লীবন্ধু হাসতে হাসতে বলেন, আমাদের জোটের আমীরগনের বয়স ত কম হইল না।

  2. ব্যান্ড তারকা আলহাজ্ব জেমস কি এই দলে নেই?

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: