অবহেলিত কোকো

নিজস্ব মতিবেদক

চলমান রাজনীতী নিয়ে গভীর হতাশা বেক্ত করেছেন বৃহত্তর জামায়াতে ইসলামীর বিএনপি শাখার মহিলা আমীর বেগম খালেদা জিয়া জেএসসির অপর সন্তান বেংকক পলাতক ছোট গনতন্ত্র আরাফাত কোকো।

আজ বেংককে স্থানীয় একটি হোটেলে আয়জিত সংবাদ সম্মেলনে এ হতাশা বেক্ত করেন কোকো।

সংবাদ সম্মেলনে কোকো বলেন, বৃহত্তর জামায়াতের বিএনপি শাখার আওলাদে আমীর হয়েও আমি অবহেলিত। জীবনে কিছুই পেলেম না।

আবেগঘন কণ্ঠে কোকো বলেন, আমাদের দেশে পরিবারে জেষ্ঠ সন্তানকেই যাবতীয় আদর আপ্যায়ন করা হয়। কনিষ্ঠ সন্তান পড়ে থাকে ভালবাসা হীন অনাদরে, প্রদীপের নিচের অন্ধকারে। জেষ্ঠ সন্তান পরিবারের বেবসায় ভাইস চেয়ারমেনের পদ পায়, কনিষ্ঠ সন্তান কুন পদ টদ পায় না। জেষ্ঠ সন্তানের সংগে চালাক চতুর বেবসায়ীদের বন্ধুত্ব হয়, কনিষ্ঠ সন্তানের সংগে বন্ধুত্ব হয় শুধু ফেন্সীডিলের পাইকারী ও খুচরা বিক্রেতা গনের। জেষ্ঠ সন্তান চারশত ছুটকেছ ভর্তি করিয়া টেকাটুকা নির্বিঘ্নে নিরাপদে সৌদী আরবে নিয়া যায়, কনিষ্ঠ সন্তানের তিলে তিলে সঞ্চয় করা টেকাটুকা বাকশালের ফেসিবাদীরা সিংগাপুর হতে জব্দ করিয়া আনিয়া রাজকোষে জমা দেয়। জেষ্ঠ সন্তান থাকে মহা সুখে বিলাতের অট্টালিকা পরে, কনিষ্ঠ সন্তান কস্ট পায় বেংককের রোদ বৃস্টি ঝড়ে। জেষ্ঠ সন্তানের নামে ফেসবুকে এত্তগুলু পেজ, কনিষ্ঠ সন্তানের নামে কেহই পেজ খুলে না। ইন্টারনেট ভর্তি জেষ্ঠ সন্তানের খবর, অতছ কনিষ্ঠ সন্তানের নামটিও কেহ লয় না।

এক পর্যায়ে হুহু করে কেদে ফেলে আরাফাত কোকো বলেন, বেংককের সকল ভাতের হটেলের মালিক আমায় চিনে। সকল মদের ঠেক, সকল ইয়াবার টঙ্গে আমার নামে বাকির খাতা। থাইলেন্ডের নাক বুচা হারামজাদাগুলি আমায় রাস্তায় দেখলে ভেংগাইয়া বলে, বাকির নাম মাদাফাকি। তারা আমার পকেটের নাম দিয়াছে আরাফাতের ময়দান। বেংককের ঠোলারা আমায় ডাকে আরাফাত কোকেন। অতছ আমিও বেগম খালেদা জিয়ার সন্তান। তবে কেন এত বিভেদ, কেন এত বৈষম্য?

শার্টের হাতায় নাক মুছে কোকো বলেন, আমার নামে এখন শুদু কতিপয় লঞ্চ আছে, যেগুলির মালিক এখন কে, আমি জানি না। কুন আয় রুজগার নাই। মাঝে মাঝে ফখা ইবনে চখা দেখা করতে আসেন, তখন পাচ দশ হাজার ডলার দিয়া যান। এই টেকা দিয়া বেংককের নেয় বেয়বহুল বিনুদন পুর্ন নগরীতে বাস করা কি কস্টের, তা ভুক্তভুগী ছাড়া কেহই বুঝবে না।

অশ্রু মুছে কোকো বলেন, নাহয় আমি দেখতে একটু অন্য রকম, তাই বলিয়া ইতনা অবহেলা?

দেশের রাজনীতী নিয়ে গভীর হতাশা বেক্ত করে আরাফাত কোকো বলেন, যে দেশে জেষ্ঠ সন্তান এত টেকাটুকা মারার পরও টেকা পাচারের মামলায় খালাস পান, আর কনিষ্ঠ সন্তানের ছয় সাত বতসরের কারাদন্ড হয়, সে দেশের রাজনীতী নিয়া আমি আর কি কব? বৃহত দুই রাজনৈতিক দল জনগনের প্রত্যাশা পুরনে বের্থ। জনগন চেয়েছিল জেষ্ঠ সন্তানের পাশাপাশি কনিষ্ঠ সন্তানেরও একটা সুষ্ঠু নিরপেক্ষ আন্তর্জাতিক মানের বেবস্থা হয়ে যাবে, কিন্তু সরকার ও বিরুধী দল জনগনের চাওয়া পাওয়ার হিসাব নিতে পারেন নি। এ থেকেই বুঝা যায়, গনতন্ত্র আজ বিপন্ন। বিশেষ করিয়া ছুট গনতন্ত্র।

আগামীতে সাবেক স্বৈরাচার ও পল্লীবন্ধু রহস্যপুরুষ আলহাজ্জ হুসেইন মুহম্মদ এরশাদকে ভোট দেওয়ার আহোভান জানিয়ে কোকো বলেন, বিএনপি শাখার সংগে আমি আর নাই। দেশে টেকা পাচারের প্রবাদ পুরুষ ও টেকা পাচারের পরেও নিরাপদে থাকার অগ্র পথিক এরশাদ সারের দলে যোগ দিব।

সলজ্জ হেসে কোকো বলেন, ওনিও দেখতে একটু অন্য রকম। গ্রেট মেন লুক এলাইক।

Tags:

13 Comments to “অবহেলিত কোকো”

  1. অসাধারণ বিদ্রুপ..কোন সন্দেহ নাই!
    কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে হাসিনার লজ্জাষ্কর এত এত কর্মকান্ড নিয়ে কোন খবর করেন না কেন ভাই? কোথাকার কোকো যাকে নিয়ে এই মুহুর্তে কোন অগ্রাধিকার নিউজ করার কথা নয়, তাকে টেনে আনলেন! আওয়ামী পৃষ্ঠপোষকতায় চলছে আপনাদের মতি.. আপনাদের সংবিধানটাও হাসিনার রচিত.. 😦

  2. বাকির নাম মাদাফাকি।

  3. বৃহত্তর জামায়াতে ইসলামীর বিএনপি শাখার মহিলা আমীর বেগম খালেদা জিয়া জেএসসি …omg…JSC? lol

  4. ” থাইলেন্ডের নাক বুচা হারামজাদাগুলি আমায় রাস্তায় দেখলে ভেংগাইয়া বলে, বাকির নাম মাদাফাকি। তারা আমার পকেটের নাম দিয়াছে আরাফাতের ময়দান।” — গইড়াইতাছি হাহাহাহাহাহাহাহ

  5. খালেদা জিয়া যেএসসি 😀 😀

  6. হাহা
    মজা

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: