সবই বাকশালের দুষ: ফখরুল

নিজস্ব মতিবেদক

রাজধানীর শাহবাগে চলন্ত বাসে অগ্নি সংযগ করে ১৯ জন যাত্রীকে পুড়ানর জন্য ক্ষমতাসীন বাকশালকে দায়ী করে বৃহত্তর জামায়াতে ইসলামীর বিএনপি শাখার ভাঁড়প্রাপ্ত নায়েবে আমীর ও জাতীয়তাবাদী শক্তির ‘কমপ্লান বয়’ মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, এ সবই বাকশালের কাম। সব দুষ তাদের।

শনিবার দেশ বেপী অবরোধ চলাকালে এক জনসভায় এ অভিযোগ করেন তিনি।

ফখা ইবনে চখা বলেন, বৃহত্তর জামায়াতের নেতা কর্মীরা যখন সারা দেশে শান্তি পুর্ন ভাবে বাকশাল জবাই করছিল, তখন এই ফেসিবাদী শক্তির পুলিশ রেব বিজিবি প্রভৃতি গিয়া তাদের উপর গুলাগুলি করেছে। এদিকে নিজেদের এজেন্ট দিয়া পাবলিকের গায়ে আগুন ধরাইয়া বলতেছে ইহা বৃহত্তর জামায়াতের কাম। কিন্তু তাদের এ ষড়যন্ত্র সফল হবে না।

বোমা গুলি পেট্রল ইত্যাদি সহ বৃহত্তর জামায়াতের নেতা কর্মীদের পুলিশের হাতে আটক হওয়ার ঘটনাকে সাজান নাটক হিসাবে উল্লেখ করে ফখা বলেন, সব নাটক। আমাদের নেতা কর্মীরা ধরা পড়েছে আর্জেস গ্রেনেড ও রামদা হাতে। কিন্তু পুলিশ সেগুলি না দেখাইয়া উহাদিগকে বান্ধিয়া বোমা গুলি পেট্রল সহ আটক দেখাইতেছে। ইহাতে আমাদের সম্মান ও ঐতিহ্য উভয়ই নস্ট হচ্ছে। এভাবে গনতন্ত্র চলতে পারে না।


রাজীবের চামড়া তুলে লব আমরা

আবেগঘন কণ্ঠে ফখা বলেন, শেখ ফজলুল করিম সেলিম নিজে স্বিকার করেছে, আমরা যখন গদিতে আছিলাম, তখন সে নিজের হাতে শেরাটনের সামনে বাসে গান পাউডার দিয়া আগুন দিছিল। ইন্টারনেটে সেই স্বিকারুক্তির ভিডিও পাওয়া যায়। এ ভিডিও থেকেই প্রমানিত হয়, শাহবাগে বাসে আগুনও শেখ ফজলুল করিম সেলিমের আকামের ফসল। সেলিম একটি অভিশাপ।

কাদতে কাদতে মির্জা বাড়ির গৌরব বলেন, ইন্টারনেটে রাজীব ও প্রভার মিলামিশার ভিডিও পাওয়া যায়। এ ভিডিও থেকেই প্রমানিত হয়, আমাদের বিএনপি শাখার সকল নেতার সন্তান প্রকৃত পক্ষে রাজীবের আকামের ফসল। রাজীবও একটি অভিশাপ। আমার সন্দেহ সেও বাকশালের এজেন্ট।

অশ্রু মুছে ফখরুল বলেন, মেডাম আমাদিগকে শুদু রাস্তায় নামতে বলেন। রাস্তা ঘাটের অবস্থা এখন ভাল না। কখন যে কে আসিয়া পুড়াইয়া দেয় কুন ঠিক নাই। তাছাড়া টেলিভিশনে ভাল ভাল নাটক সিনেমা অবলোকনের সুবর্ন সুযুগও নস্ট হয়।

কারাগারে বন্দী মওদুদ আনোয়ার, মতি কণ্ঠ আনোয়ার, রফিকুল মিয়া, আবদুল মিন্টু ও শিমুল বিশ্বাসের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করে ফখরুল বলেন, এই সালারা ঘোচুর দল আন্দুলনে না নামিয়া গিয়া ঢুকছে জেলে। আমি সৈয়দ আশরাফুলরে কত করিয়া বললাম, আমায় জেলে ঢুকান। ডিভিশন নিয়া কয়েকটা দিন টিভি দেখিয়া পতৃকা পড়িয়া আরামে গুজরান করি। সে আমারে এরেষ্ট না করিয়া গিয়া ধরল চুনুপুটি রুহুল কবীর রিজভীরে। সকল আরাম এখন রিজভী পাবে, আর আমায় রাস্তাঘাটে আগুন ককটেল ঠেলিয়া আন্দুলন করতে হবে। এ কেমন গনতন্ত্র?

তরিকুল ইসলামের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করে ফখা ইবনে চখা বলেন, সালা মাসের পর মাস অসুখের ভং ধরিয়া খাটে শুইয়া আছে, যাতে আন্দুলন সংগ্রামে মাঠে নামতে না হয়।

One Comment to “সবই বাকশালের দুষ: ফখরুল”

  1. বোমা গুলি পেট্রল ইত্যাদি সহ বৃহত্তর জামায়াতের নেতা কর্মীদের পুলিশের হাতে আটক হওয়ার ঘটনাকে সাজান নাটক হিসাবে উল্লেখ করে ফখা বলেন, সব নাটক। আমাদের নেতা কর্মীরা ধরা পড়েছে আর্জেস গ্রেনেড ও রামদা হাতে। কিন্তু পুলিশ সেগুলি না দেখাইয়া উহাদিগকে বান্ধিয়া বোমা গুলি পেট্রল সহ আটক দেখাইতেছে। ইহাতে আমাদের সম্মান ও ঐতিহ্য উভয়ই নস্ট হচ্ছে। এভাবে গনতন্ত্র চলতে পারে না।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: