দুই কুকুরের লড়াইয়ে আমি গেলারীতে: খালেক

নিজস্ব মতিবেদক

চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি সম্পর্কে উচ্ছাস প্রকাশ করে বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রিক দল ওরফে বাসদের আমীর কমরেড আল্লামা খালেকুজ্জামান বলেছেন, দুই কুকুরের লড়াই জমে উঠেছে। আমি গেলারীতেই আছি।

আজ নিজ বাসভবনে আয়জিত এক অন্তরংগ সাক্ষাতকারে এ উচ্ছাস প্রকাশ করেন কমরেড আল্লামা খালেক।

খালেক বলেন, এখন পযন্ত লড়াইয়ে হানাহানির দিক হতে আগাইয়া আছে আমার প্রিয় কুকুর বৃহত্তর জামায়াত। অপ্রিয় কুকুর বাকশাল মাইরের উপর আছে। কিছু ভুদাই জনগন, যারা কুনদিন বিপ্লব করবে না, তারাও অসুবিধায় আছে। তবে সম্ভাব্য বিপ্লবীগনের কুন সমস্যা নাই। তারা গেলারীতে আছে।

আবেগঘন কণ্ঠে কমরেড আল্লামা খালেক বলেন, বাকশালের ফেসিবাদকে বাসদ একা বিপ্লব করিয়া ঠেকাইতে পারবে না। ভেনগার্ড বিক্রয় করিতে গিয়াই আমাদের নাভিশ্বাস উঠিয়া যায়। তাই বৃহত্তর জামায়াতের বাকশাল ধুলাইকে আমরা মৌন সমর্থন দিতেছি।


কল রেডী

বৃহত্তর জামায়াতকে মৌন সমর্থন দেওয়া আত্মঘাতী হবে কিনা, এমন প্রশ্নের জবাবে হাসতে হাসতে কমরেড আল্লামা খালেক বলেন, বৃহত্তর জামায়াতরে মৌন সমর্থন না দিয়ে জুরে জুরে সমর্থন দিলে সেটা কি ভাল দেখাবে? আর তাদের সংগে শত্রুতা করতে গেলে যদি মাইর খাই?

রাস্ট্র ক্ষমতা দখলের পরিকল্পনা বেখ্যা করে খালেক বলেন, এই দুই কুকুরের লড়াইতে দুই কুকুরই মাইর দিতে দিতে ও মাইর খাইতে খাইতে হয়রান হইবে। মাঝখান দিয়া কতিপয় জনগন, যারা কুনদিন বিপ্লব করবে না, তারাও জ্বলিয়া পুড়িয়া বিনাশ হবে। তখন বাসদের বিপ্লবীরা ফিডেল কেষ্ট্রর নেয় রাস্ট্র দখল করবে। আমি হব প্রধান মন্ত্রী আর আমীরে সিপিবি সেলিম হবে বিরুধী দলীয় নেতা। তখন আমরা নিজেরা নিজেরা শেখ-মেডাম খেলব।

মুক্তিযুদ্ধের নিন্দা করে খালেক বলেন, মুক্তিযুদ্ধও আছিল দুই কুকুরের লড়াই। আমরা তখনও গেলারীতে আছিলাম, এখনও গেলারীতে আছি। হাড্ডি একদিন আমাদেরই হইবে।

এ সময় মুঠোফুনে কল এলে কল ধরে কমরেড আল্লামা খালেক হাসতে হাসতে বলেন, আমরা সর্বদা কল রেডী।

10 Comments to “দুই কুকুরের লড়াইয়ে আমি গেলারীতে: খালেক”

  1. ভেনগার্ড বিক্রয় করিতে গিয়াই আমাদের নাভিশ্বাস উঠিয়া যায়।
    সেইরাম ……………।

  2. অসাধারণ।

  3. কমরেড খালেকুজ্জামানের নামে এই নোংরামি বন্ধ করেন ! খালেকুজ্জান সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহনকারী একজন মুক্তিযোদ্ধা, আজীবন বিপ্লবী, এবং নিপীড়িত মানুষের নেতা ।

    হঠাৎ করে বাসদ, সিপিবিকে নিয়ে মতিকন্ঠের এই অর্ন্তজ্বালা কেন ? সামনের পাতানো নির্বাচনে আওয়ামী সন্ত্রাসীদের সমর্থন দেয় নাই বলে ?

    বাংলাদেশের রাজনীতির দুর্বত্ত্বায়ন, মৌলবাদী শক্তির হিংস্রতা, সাংস্কৃতিক অবক্ষয়, এবং বড়লোকদের পাতের ভাত খাওয়া বুদ্ধিজীবিদের চরিত্র উন্মোচনে মতিকন্ঠের অবস্থান অপ্রতিদ্বন্দ্বী। অন্যদিকে, সন্ত্রাসী আওয়ামীলিগের হাজারটা অপকর্মের ব্যাপারে মতিকন্ঠ রহস্যময়ভাবে নিরব।

    কি কারনে ?

    • খালেক কার পাতে ভাত খায়?

    • পৃথিবীর কোন স্বচ্ছ নির্বাচনে এইসব ন্যাতাদের জামানত বাঁচবে না। তাইলে কিসের বালের রাজনীতি করেছেন? তাদের চাইতে জামাতীরা এতো শক্তিশালী কেন? এরশাদ কেন রাজনীতির নিয়ামক? কি বাল ফেলেছেন সারাজীবন। নীতিহীন রাজনীতি করে জীবনেও কিছু করতে পারবেন না। সারা জীবন নিজের গুয়া খাউজাইয়া খাল বানাইতেই পারবে। বাম হাতের কাজই হলো গুয়া চুলকানো।

  4. নিপীড়িত মানুষের নেতার হাতে বড়ই বিপ্লবী মুবাইল জনাব!

  5. হঠাৎ করে বাসদ, সিপিবিকে নিয়ে মতিকন্ঠের এই অর্ন্তজ্বালা কেন ? সামনের পাতানো নির্বাচনে আওয়ামী সন্ত্রাসীদের সমর্থন দেয় নাই বলে ?
    I have the same question, and what is wrong with you guys, why are keeping silent about all the misdeeds of the government.

  6. পৃথিবীর কোন স্বচ্ছ নির্বাচনে এইসব ন্যাতাদের জামানত বাঁচবে না। তাইলে কিসের বালের রাজনীতি করেছেন? তাদের চাইতে জামাতীরা এতো শক্তিশালী কেন? এরশাদ কেন রাজনীতির নিয়ামক? কি বাল ফেলেছেন সারাজীবন। নীতিহীন রাজনীতি করে জীবনেও কিছু করতে পারবেন না। সারা জীবন নিজের গুয়া খাউজাইয়া খাল বানাইতেই পারবে। বাম হাতের কাজই হলো গুয়া চুলকানো।

    • তাদের চাইতে জামাতীরা এতো শক্তিশালী কেন? এরশাদ কেন রাজনীতির নিয়ামক?……….কারন্টা হইলো জনগণের ম্যাজরিটি দুর্জয় সাহেবের কাতারের গিয়ানি।

  7. শেখ হাসিনা ট্যাগে গিয়ে হতাশ হলাম। কারণ সেখানে শেখ হাসিনা সম্পর্কে কোন লেখা না্ ি বরং খালেদা সম্পর্কে লেখা পেলাম। মতিকন্ঠ নিশ্চয় রাজনীতি অসচেতন নন। তাহলে বর্তমান সরকার প্রধানের স্বাধীনতা ও যুদ্ধপরাধের বিচার ব্যবসা ভাওতাবাজি ও প্রতারনার প্রতিফলন ন্ ি কেন? আপনারা কোন গোষ্ঠির ? হঠাৎ করে বাসদ, সিপিবিকে নিয়ে মতিকন্ঠের এই অর্ন্তজ্বালা কেন ? সামনের পাতানো নির্বাচনে আওয়ামী সন্ত্রাসীদের সমর্থন দেয় নাই বলে ?

    বাংলাদেশের রাজনীতির দুর্বত্ত্বায়ন, মৌলবাদী শক্তির হিংস্রতা, সাংস্কৃতিক অবক্ষয়, এবং বড়লোকদের পাতের ভাত খাওয়া বুদ্ধিজীবিদের চরিত্র উন্মোচনে মতিকন্ঠের অবস্থান অপ্রতিদ্বন্দ্বী। অন্যদিকে, সন্ত্রাসী আওয়ামীলিগের হাজারটা অপকর্মের ব্যাপারে মতিকন্ঠ রহস্যময়ভাবে নিরব।

    কি কারনে ?

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: