জাপার সংরক্ষিত নারী আসনে ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস

নিজস্ব মতিবেদক

সাবেক স্বৈরাচার রাস্ট্রপতি ও পল্লীবন্ধু রহস্যপুরুষ জেনারেল আলহাজ্জ হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের মালিকানাধীন জাতীয় পার্টির সংরক্ষিত নারী আসনে ভর্তির জন্য মৌখিক পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনায় জন জীবনে তিব্র আলড়নের সৃস্টি হয়েছে।

সোমবার দুপুরে পল্লীবন্ধু তার বনানী কার্যালয়ে জাতীয় পার্টির সংরক্ষিত আসনে ভর্তি হতে ইচ্ছুক ৯৫ জন পরীক্ষার্থীর মৌখিক পরীক্ষা নেন।

জাতীয় পার্টির সংরক্ষিত আসনে সংসদ সদস্য হওয়ার জন্য আগ্রহী এক নারী নাম প্রকাশ না করার শর্তে মতিকণ্ঠকে বলেন, ভর্তি পরীক্ষার জন্য ৫ হাজার টেকা দিয়ে ফর্ম খরিদ করেছি। আরও ৫ হাজার টেকা দিয়ে প্রশ্নপত্রের এক সেটও খরিদ করেছি। আলহামদুলিল্লাহ, প্রশ্ন কমন পড়েছে, পরীক্ষাও ভাল দিয়েছি।

মৌখিক পরীক্ষায় কি প্রশ্ন এসেছে, এ প্রশ্নের সরাসরি উত্তর না দিয়ে উক্ত নারী মতিকণ্ঠকে চোখ টিপে বলেন, বুঝেনই ত।

মৌখিক পরীক্ষার পর বেশ কয়েকজন ক্ষুব্ধ নারী পরীক্ষার্থীকে পল্লীবন্ধুর বনানী কার্যালয়ের বাইরে স্লোগান দিতে দেখা যায়। এ সময় তাদের সংগে পল্লীবন্ধুর বেক্তিগত কর্মকর্তা সুনীল শুভ রায়ের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হয়। শেষ পর্যন্ত পুলিশ, রেব ও বিজিবি কয়েক শত রাউন্ড ফাকা গুলি ও টিয়ার গেস চার্জ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। তবে এ সময় কেউ হতাহত হয়নি।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে জনৈক ক্ষুব্ধ নারী পরীক্ষার্থী বলেন, ৫ হাজার টেকা দিয়ে ফর্ম খরিদ করেছি। আরও ৫ হাজার টেকা দিয়ে প্রশ্ন খরিদ করেছি। কিন্তু ফাস হওয়া প্রশ্নের সংগে মৌখিক পরীক্ষার প্রশ্ন মিলে নাই। আমাদের সংগে প্রতারনা করা হয়েছে।

মৌখিক পরীক্ষায় কি প্রশ্ন এসেছে, এ প্রশ্নের কোন সরাসরি উত্তর না দিয়ে উত্তেজিত পরীক্ষার্থীরা মাথায় ঘোমটা দিয়ে বলেন, বুঝেনই ত।

এ বেপারে হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের সংগে যোগাযোগ করা হলে তিনি তার বেক্তিগত কর্মকর্তা সুনীল শুভ রায়ের সংগে আলাপের পরামর্শ দিয়ে মুঠোফোন সংযোগ কেটে দেন। এ সময় তিনি অত্যান্ত ক্লান্ত ছিলেন।

সুনীল শুভ রায় মতিকণ্ঠকে নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, আমি শুনেছি একজন সাবেক স্বৈরাচার এই প্রশ্নপত্র ফাসের সংগে জড়িত।

এ বেপারে আর কিছু বলতে অপারগতা প্রকাশ করে সুনীল শুভ রায় বলেন, আর কিছু বলতে পারব না। বুঝেনই ত।

3 Comments to “জাপার সংরক্ষিত নারী আসনে ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস”

  1. সুনীল শুভ রায়ের নামটা তো প্রকাশ কইরাই দেয়া হইলো। তাইলে আর নাম প্রকাশ না করার শর্ত পালন কই করলো মতিকণ্ঠ? এ বিষয়ে মতিকণ্ঠ মতিবেদককে জিজ্ঞাসাবাদ করা হইলে তিনি লুঙ্গি উচু কইরা তুইলা ধইরা বলেন, বুঝেনই ত!

  2. মৌখিক পরীক্ষা… হাহাহাহাহাহাহা…

  3. বুঝেনই ত।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: