ইউনূসের কবর উড়িয়ে দিল আইসিস

ইরাক মতিনিধি

ইরাকের দ্বীতিয় বৃহত্তম নগরী মশুলে অবস্থিত প্রাচীন মসজিদ ও মসজিদ সংলগ্ন ইউনূস নবীর কবর বোমা দিয়ে উড়িয়ে দিল ইরাকের বিপ্লবী জংগী সংগঠন আইসিস।

পবিত্র লাইলাতুল কদরে ইউনূস নবীর কবর উড়িয়ে দেয় আইসিস।

এ বেপারে আইসিসের মুখপাত্রের সংগে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ইউনূস নবীর কবরে বেলাল্লাপনা সীমা ছাড়িয়ে যাচ্ছিল। তাই উড়াইয়া দিলাম।

পবিত্র কোরানে বর্নিত একজন নবীর কবর উড়িয়ে দেওয়া ইসলামের দৃস্টিতে অপরাধ কিনা, এ প্রশ্নের জবাবে আইসিস মুখপাত্র বলেন, বন্দুক কার হাতে?

বন্দুক আইসিসের হাতে, এমন উত্তর দেওয়ার পর আইসিস মুখপাত্র বলেন, বোমা কার হাতে?

বোমা আইসিসের হাতে, এমন উত্তর দেওয়ার পর আইসিস মুখপাত্র হাসতে হাসতে বলেন, তাহলে ইসলামের দৃস্টি কার হাতে?

আইসিসের বোমায় হযরত ইউনূসের কবর ও মসজিদ উড়ানর দৃশ্য

ইউনূস নবীর কবর উড়িয়ে দেওয়ার প্রতিক্রিয়া জানতে বাংলাদেশের অভ্যন্তরে স্বাধীন রাস্ট্র হাটহাজারিস্তানের নায়েবে খলিফা আল্লামা জুনাইদ বাবুনগরীর সংগে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, যেহেতু মুসলমানের হাতে ইউনূস নবীর কবর ধ্বংস হইয়াছে, তাই এই বেপারে আমরা কুন উচ্চবাচ্চ করব না। কুন হিন্দু, বৌদ্ধ বা খৃষ্ঠান এই কাম করলে আমরা আবার ১৩ দফার ডাক দিয়া শাপলা চত্বরে খাড়াইতাম।

জিহাদের প্রকৃতি অদ্ভুদ, এ মত বেক্ত করে বাবুনগরী বলেন, জিহাদে নামলে মাঝে মধ্যে সংগী মোজাহিদের পুটুও বিনাশ হয়ে যায়।

ইউনূস নবীর কবরের প্রতি আল্লাহর রহমত ছিল না জানিয়ে বাবুনগরী বলেন, ইউনূস নবীর কবরের উপর আল্লাহর রহমত থাকলে আইসিস সে কবর উড়াইয়া দিতে পারত না। এখানে আল্লাহর মাল আল্লাহ নিয়া গেছেন ধরিয়া নিয়া খুশী থাকতে হবে।

আইসিসের উপর অসন্তষ প্রকাশ করে জুনাইদ বাবুনগরী বলেন, সৌদী হতে জিহাদ বাবদ দিরহাম পাওয়া যাইত, সেই দিরহামে আইসিস টান দিতেছে। সালাদের কারনে আমরার এইদিকে কুন দিরহাম আইতেছে না। বিনা দিরহামে জিহাদ পুষায় না, তাই আমরা আপাতত চুপচাপ আছি।

এদিকে ইউনূস নবীর কবর উড়ানর তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে সদ্য গঠিত রাজনৈতিক দল বাবুনাগরিক শক্তির আমীর, বাংলাদেশের একমাত্র নোবেল বিজয়ী অর্থনীতীবীদ ও গ্রামীন বেংকের বিতাড়িত মালিক ‘অর্থনীতীর সানি লিওনি’ কায়েদে নোবেল ড. মুহম্মদ ইউনূস বাবুনগরী বলেছেন, এ ত খাড়ার উপরে কায়েদে নোবেলের অপমান।

আবেগঘন কণ্ঠে অর্থনীতীর সানি লিওনি বলেন, ইউনূসরা কবরে গিয়াও শান্তি পায় না, ঘোচুর দল সে কবরে এটাক করে। আমি শিউর আইসিসের সংগে বাকশালের সম্পর্ক আছে।

তবে ইরাক দখল করতে পারলে আইসিসের সংগে সামাজিক বেবসার আগ্রহ জানিয়ে বাবুনগরী বলেন, দিরহাম ছাড়া শান্তি সম্ভব নহে। ইরাকে আইসিসের তত্তাবধানে গ্রামীন-নান্দুজ যৌথ চিকেন বেবসা করতে পারলে আমরা উভয় পক্ষই লাভবান ও লাল হব। ১১ হাজার টেকায় চিকেন বিক্রয় করতে পারলে দারিদ্রকেও ইউনূস নবীর কবরের নেয় উড়াইয়া দেওয়া সম্ভব।

6 Comments to “ইউনূসের কবর উড়িয়ে দিল আইসিস”

  1. দিনকে দিন এতো পঁচা হইতেসে ক্যান? এটা কিছু হইল?

    • কারুন আমনের দিষ্টিবঙ্গিই পঁচিয়া যাইতেছে!

  2. অসাধারণ লিখছেন ভাই!
    সুপার লাইক!

  3. ভাল হইল না , খুব পচা । মতিকন্ঠের কাছে এ রকম আশা করি নাই। এইটা পইরা হাসুম না কাদুম বুজতাছি না ।

  4. ফাটাফাটি

  5. মজাই লাগল।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: