ইউনূসের কবর ধ্বংসের পিছনের কারন উদঘাটিত

ইরাক মতিনিধি

বাইবেল ও কোরানে বর্নিত ইউনূস নবীর ২৮০০ বতসরের পুরাতন কবরের পাশে নির্মিত মসজিদ ধ্বংসের পিছনের কারন উদঘাটন করেছে উগ্র জংগীবাদী সংগঠন আইসিস।

আজ আইসিসের বিজ্ঞান শাখার আমীর শায়খ আব্বাস বাগদাদী আইসিস কতৃক দখলকৃত মশুল শহরের একটি কমিউনিটি সেন্টারে আয়জিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ কারন উদঘাটন করেন।

সংবাদ সম্মেলনে আব্বাস বাগদাদী বলেন, হযরত ইউনূসের কবর ও কবরের পাশে নির্মিত মসজিদ উড়াইয়া দিতে আমাদের কুন কস্ট হয় নাই। মার্কিন যুক্তরাস্ট্র ইরাক সরকারকে বোমা ও বিষ্ফরক খরিদ বাবদ বিলিয়ন বিলিয়ন ডলার ছদকা দিয়াছে। সেই টেকায় ইরাক সরকার ইরাক সেনা বাহিনীর জন্য মার্কিন কম্পানী হইতে বোমা পটকা খরিদ করিয়াছে। আর ইরাক সেনা বাহিনী সেই সকল বোমা পটকা আমাদিগের হাতে তুলিয়া দিয়া পলায়ন করিয়াছে।

আবেগঘন কণ্ঠে বাগদাদী বলেন, দুই চারটা মসজিদ ধ্বংস করা আইসিসের জন্য কুন বেপারই নহে। আমরা জানি, কেউ কুন প্রতিবাদ করবে না। কারন মুসলমান যদি মুসলমানকে মারে, কুন মুসলমানের ধর্মানুভুতিতে ফুলের টুকাও লাগে না। কিন্তু যদি কুন অমুসলমান আসিয়া কুন মুসলমানকে কাতুকুতুও দেয়, তবে দুই চারটা মন্দির পেগডা গির্জা চুরমার করা ফরজ হইয়া দাড়ায়।

হাসতে হাসতে আব্বাস বাগদাদী বলেন, পবিত্র রমজান মাসে হযরত ইউনূসের কবর যে মসজিদের সংগে উড়াইয়া দিলাম, কুন মমিন কুন আওয়াজ করে নাই। কারন বোমা বন্দুক ও কামান আমাদিগের হাতে। এতেই প্রমানিত হয়, কামান > ঈমান।


কুফামাষ্টার পুটুন ইজ বেক

হযরত ইউনূসের কবর ধুলিসাতের পিছনে আসল কারন বেখ্যা করে আব্বাস বাগদাদী বলেন, এই ২৮০০ বতসরের পুরাতন কবর আমরা যে কেন উড়াইলাম, তা আমাদিগের নিকটও পরিষ্কার আছিল না। কিন্তু আজ ফেসবুকে ঢুকিয়াই দেখলাম বাংলাদেশের প্রভাবশালী এলাকা কারওয়ানবাজারের উপসর্দার ও আইভরী কোষ্ট ফিরত উপন্যাসিক মা’র্কেজে কারওয়ানবাজার কুফামাষ্টার আল্লামা আমিষুল হক পুটুনদা কিছুদিন আগে ইউনূসের কবরের সামনে সেলফি তুলিয়া গেছে। তখন সব পরিষ্কার হইল।

আনন্দঘন কণ্ঠে আব্বাস বাগদাদী বলেন, পুটুনদা যার সংগে সেলফি তুলে, তার সানডে মানডে সকলই কোলজ হইয়া যায়। হযরত ইউনূস তিমি মাছের পেটে ঢুকিয়া রক্ষা পাইছিলেন আলহামদুলিল্লাহ। কিন্তু কুফামাষ্টার একাই একশটি তিমি মাছের নেয় ভয়ংকর। তাই আইসিস এই ঘটনায় উছিলা মাত্র।

সকলই আল্লাহর ইচ্ছা, এমন মত বেক্ত করে আব্বাস বাগদাদী বলেন, আল্লাহ পাকের ইশারা ছাড়া গাছের পাতাটিও নড়ে না। আর একজন নবীর কবর ও মসজিদ ধ্বংস উনার ইশারা ছাড়া কিভাবে হবে?

2 Comments to “ইউনূসের কবর ধ্বংসের পিছনের কারন উদঘাটিত”

  1. এই লোকরে এত ছেচেন কেন? কী দোষ করেছে!

  2. পুটুনদা যার সংগে সেলফি তুলে, তার সানডে মানডে সকলই কোলজ হইয়া যায়। হযরত ইউনূস তিমি মাছের পেটে ঢুকিয়া রক্ষা পাইছিলেন আলহামদুলিল্লাহ। কিন্তু কুফামাষ্টার একাই একশটি তিমি মাছের নেয় ভয়ংকর। তাই আইসিস এই ঘটনায় উছিলা মাত্র।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: