আলীমের মৃত্যুতে বিএনপি শাখায় শোকের ছায়া

নিজস্ব মতিবেদক

আজীবন আরামদণ্ড প্রাপ্ত একাত্তরের যুদ্ধাপরাধী ও একাত্তরের রেম্ব জেনারেল জিয়ার মন্ত্রী সভার সাবেক মন্ত্রী আব্দুল আলীমের মৃত্যুতে বৃহত্তর জামায়াতে ইসলামীর বিএনপি শাখা জুড়ে নেমে এসেছে শোকের ছায়া।

আজ আলীমের মৃত্যু উপলক্ষে আয়জিত বিশেষ দুয়া মাহফিলে বিএনপি শাখার বিভিন্ন স্তরের নেতা কর্মীরা উপস্থিত হন।

বিএনপি শাখার ভাঁড়প্রাপ্ত নায়েবে আমীর, জাতীয়তাবাদী শক্তির ‘কমপ্লান বয়’, লনডনে পলাতক চিকিতসাধীন আওলাদে আমীর বড় গুণ্ডে কতৃক ‘হাইড এন্ড সিক’ গালিতে ভুষিত ও ঈদুল কতলের টেলেন্ট হান্ট প্রতিযোগীতায় ‘ফ্লেয়ার এন্ড লাবলি’ খেতাবে সমাদৃত মির্জা বাড়ির বড় গৌরব আল্লামা মির্জা ফখরুল ইসলাম আগুনগীর ওরফে ফখা ইবনে চখা আলীমের স্মৃতি চারন করে বলেন, আব্দুল আলীম আছিলেন বিএনপি শাখার সম্পদ। একাত্তরের রেম্ব জেনারেল জিয়া উনাকে পরথমে বস্ত্র মন্ত্রী, পরে যোগাযোগ মন্ত্রী বানাইছিলেন। একাত্তর সালে উনি আরও দুই তিন হাজার মানুষ মারতে পারলে হয়ত আলীম চাচা প্রধান মন্ত্রী পদও পাইতেন। আপসুস, তার আগেই পাক বাহিনীর ভাইয়ারা আত্ম সমর্পন করিয়ালাইল।

আবেগঘন কণ্ঠে আগুনগীর বলেন, তিনি আছিলেন আমার পিতার বয়সী। আমার সংগে দেখা হইলেই আমার ওয়ালিদের খবর লইতেন। রসিকতা করিয়া বলতেন, আমি এক হাজার গাদ্দার মারছি। তুমার ওয়ালিদ কয় হাজার মারছে?


আলীমের মৃত্যুতে বেথিত মাদারে গনতন্ত্র

আব্দুল আলীমকে আজীবন আরামদণ্ড দেওয়ার জন্য বাকশালকে ধিক্কার জানিয়ে ফখা ইবনে চখা বলেন, আমরাও যুদ্ধাপরাধীদের বিচার চাই। কিন্তু সে বিচার হইতে হবে সচ্ছ নিরপেক্ষ আন্তর্জাতিক। বিচারের নামে আমরার পেহলে বস্ত্র মন্ত্রী বাদ মে যোগাযোগ মন্ত্রী ক আরামদণ্ড দেনা নাহি চলেগি। নাহয় আলীম চাচা যুদ্ধের সময় কিছু বাংগালী মারছে, তাই বলিয়া ইতনা জুলুম?

আব্দুল আলীমের সুযোগ্য পুত্র ফয়সল আলীমের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করে মির্জা বাড়ির বড় গৌরব বলেন, নির্বাচনের আগে দিয়া যখন আমরা সারা দেশে মনির পুড়াইতেছিলাম আর রেল লাইন উপড়াইতেছিলাম, তখন ফয়সল আলীমও সেই জিহাদে গুরুত্বপুর্ন ভুমিকা রাখছিল। আমরা আবার কুনদিন যদি গদিতে যাইবার পারি, ফয়সল আলীমকে বস্ত্র মন্ত্রী বানাব।

জীবনের শেষ দিনগুলিতে বাংলাদেশের দরিদ্র জনগনের খাজনার টেকায় আলীমের চিকিতসা করানর জন্য বাকশালকে ধন্যবাদ জানিয়ে মির্জা ফখরুল বলেন, কত মুক্তিযুদ্ধা চিকিতসার অভাবে আদাড়ে বাদাড়ে ধুকিয়া ধুকিয়া মরে। অতছ আমরার আলীম চাচারে বাকশাল সরকার ভিআইপি চিকিতসা দিয়াছে। তিনি পাদ মারিলেও তিন চারখান বড় বড় ডাক্তার আসিয়া পাদের ইনজেকশন দিয়া যাইত। এই প্রহসনের বিচারের মাধ্যমে সাস্থ্য খাতে আমাদিগের প্রচুর টেকা বাচিয়া যাইতেছে, যা দ্বারা আমরা উন্নত মানের বিষ্ফরক খরিদ করিয়া কুন এক ঈদের পর আন্দুলনে নামতে পারব।

One Comment to “আলীমের মৃত্যুতে বিএনপি শাখায় শোকের ছায়া”

  1. আলীম যোগাযোগ নয় রেল মন্ত্রী ছিল। তাতে খুব একটা পার্থক্য হবে কি?

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: