Posts tagged ‘গোলাম আজম’

December 27, 2014

জিহাদ নহে, উহা গোলাম আযমের কান্নার শব্দ: জুনাইদ সংঘ

নিজস্ব মতিবেদক

রাজধানীর রাজধানীর শাহজাহানপুরের রেলওয়ে কলোনি মাঠের পাশে পরিতেক্ত গভীর নলকুপের পাইপে যে রহস্যময় শব্দ শুনে দমকল বাহিনী, এলাকা বাসী ও সাংবাদিকরা আটকা পড়া চার বছর বয়সী শিশু জিহাদের কান্নার শব্দ মনে করেছেন, তা জিহাদের কান্নার শব্দ নয়, বরং কবর বাসী আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইবুনাল কতৃক ৯০ বতসরের আরামদন্ড প্রাপ্ত যুদ্ধাপরাধী ও বৃহত্তর জামায়াতে ইসলামীর সাবেক খানকির পোলায়ে আমীর ভাষা সৈনিক অধ্যাপক গোলাম আজমের কান্নার শব্দ।

গভীর রাতে এমনই চাঞ্চল্য কর বিবৃতী দিয়ে সারা দেশের মানুষকে স্তব্ধ করে দিয়েছেন সদ্যগঠিত ১১০% অরাজনৈতিক সংগঠন ‘নিখিল বাংলাদেশ জুনাইদ সংঘ’-র প্রতিষ্ঠাতা আমীর আল্লামা জুনাইদ বাবুনগরী ওরফে কুরান-পুড়াইন্যা জুনাইদ ও নায়েবে আমীর জুনাইদ সাকী।

বাংলাদেশের অভ্যন্তরে স্বাধীন রাস্ট্র হাটহাজারিস্তানের দারুল উলুম মইনুল ইসলামের ময়দানে পেন্ডেল টাংগিয়ে আয়জিত এক সংবাদ সম্মেলনে শত শত কুরান হাদিস পুড়ানর মামলার আসামী আল্লামা জুনাইদ বাবুনগরী বলেন, শিশু জিহাদকে খুজিয়া পাওয়া যাইতেছে না। এমন সময় গভীর নলকুপের পাইপে শুনা গেল কান্নাকাটির শব্দ। সকলে মনে করল জিহাদ গর্তে পতিত হইছে। কিন্তু পরে এয়াহুদী নাছাড়াদিগের আবিস্কৃত এই কেমেরা যন্ত্রটি নামাইয়া দেখা গেল, পাইপের ভিতরে শুদু টিকটিকি আছে, জিহাদ নাই।

আবেগঘন কণ্ঠে নায়েবে আমীর আল্লামা জুনাইদ সাকী বলেন, এমতাবস্থায় সম্ভাবনা দুইটি। প্রথম সম্ভাবনা হইতেছে, কারও বদদুয়ায় শিশু জিহাদ টিকটিকিতে পরিনত হইয়াছে। অত্যান্ত কামেল কুন আলেম, যেমন আমরার আল্লামা রাজ আহমদ শফীকে দিয়া বদদুয়া পড়াইলে ইহা অসম্ভব কিছু নহে।

আরও আবেগঘন কণ্ঠে আমীর আল্লামা জুনাইদ বাবুনগরী বলেন, কিন্তু দ্বীতিয় সম্ভাবনাটিই বেশী বাস্তব। যে শব্দ শুনা গেছে, উহা শিশু জিহাদের কান্নার আওয়াজ নহে, বরং কবর নিবাসী বৃহত্তর জামায়াতের সাবেক খানকির পোলায়ে আমীর অধ্যাপক গোলাম আজমের কান্নার শব্দ।

হুহু করে কেদে উঠে বাবুনগরী বলেন, আমীরুল গাদ্দারানকে মগবাজারের গাদ্দারপাড়ায় পারিবারিক কবরস্থানে গোর দেওয়া হইয়াছে। উহা শাহজাহানপুর হইতে খুব বেশী দুরে নহে। ইসলামে বলা আছে, যারা ইহকালে নানা গুনাহের মধ্যে লিপ্ত থাকে, উহাদের কবরে মুনকার নাকীর নামক ফেরেস্তাদিগের মাইর খাইতে হয়। আমরার হিসাব মতে এখন গোলাম আজম সলিড আযাবের ভিতর দিয়া যাইতেছে। মুনকার নাকীর ইচ্ছা মত উহার পুটু বিনা অলিভ অয়েলে মারিয়া চুরমার করিতেছে। আর ঐ আযাবের মাইর খাইয়া গোলাম আজম কান্দিতেছে।

পদার্থ বিজ্ঞানের বেখ্যা দিয়ে আল্লামা জুনাইদ সাকী বলেন, মাটিতে শব্দের বেগ বাতাসে শব্দের বেগ অপেক্ষা বেশী। আর এই শব্দ যায়ও অনেক দুর পযন্ত। তাই গাদ্দারপাড়ায় কবরের কান্নাকাটি শাহজাহানপুরের পাইপে গিয়া বাড়ি মারবে, ইহাই স্বাভাবিক।

শাহজাহানপুরের পাইপের মুখ ঠিক মত আটকানর পরামর্শ দিয়ে জুনাইদ সংঘের আমীর ও নায়েবে আমীর বলেন, দমকল দিয়া গোলাম আজমের কান্না থামান যাইবে না। লাইনে আসুন।

October 25, 2014

কাজী অফিসের গলিকে ‘গাদ্দারপাড়া’ ডাকায় রাগারাগি করলেন গোলামপুত্র মতিচুর

নিজস্ব মতিবেদক

মগবাজারে পারিবারিক গরস্তানে দাফনের পর আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইবুনাল কতৃক ৯০ বতসরের আরামদন্ড প্রাপ্ত যুদ্ধাপরাধী ও বৃহত্তর জামায়াতে ইসলামীর সাবেক খানকির পোলায়ে আমীর ভাষা সৈনিক অধ্যাপক গোলাম আজমের বাসস্থান ও কবরের মধ্যবর্তী এলাকাকে এলাকাবাসী ‘গাদ্দারপাড়া’ ডাকা শুরু করায় রাগারাগি করেছেন গোলাম আজমের অবৈধ পুত্র, দেশের প্রভাবশালী এলাকা কারওয়ানবাজারের সর্দার ও ১১০% অরাজনৈতিক সংগঠন ‘হেফাজতে মাহমুদুর’ এর প্রতিষ্ঠাতা আমীর মতিচুর রহমান আজমী।

আজ জাতীয় মসজিদ বায়তুল মকাররমে বৃহত্তর জামায়াতের সাবেক খানকির পোলায়ে আমীরের নামাজে জানাজা আদায়ের পর নিজ কার্যালয়ে ফিরে এসে এক সংবাদ সম্মেলনে এ রাগারাগি করেন গোলামপুত্র মতিচুর।

সংবাদ সম্মেলনে মতিচুর আজমী বলেন, আমার অবৈধ পিতা বাস করতেন মগবাজার কাজী অফিসের গল্লিতে। উনার দাফনও হইছে মগবাজারে পারিবারিক গরস্তানে। অতছ মগবাজার এলাকাবাসী সালা ঘোচুর দল এখন উনার কবর আর বাড়ির মাঝের এলাকারে গাদ্দারপাড়া ডাকা শুরু করছে। ইহা কেমন আচরন?


গাদ্দার গোলাম আজম

হুহু করে কেদে উঠে মতিচুর সর্দার বলেন, নাহয় পাকিস্তান আর্মির খেদমত খাটতে গিয়া আমাদিগের সংগে উনি গাদ্দারী করিয়াছিলেন, খুন জখম ধর্ষন লুটপাটে সহায়তা করিয়াছিলেন, দেশ স্বাধীন হওয়ার পরেও সৌদী গিয়া বাংলাদেশের বিরুদ্ধে চক্রান্ত করিয়াছিলেন, বাংলার মানুষদিগকে হজ করিতে বাধা দিয়াছিলেন, তাই বলিয়া ইতনা অপমান?

এ বেপারে গাদ্দার গোলাম আজমের আরেক পুত্র সেনাবাহীনী হতে বহিষ্কৃত বিগ্রেডিয়ার জেনারেল আবদুল্লাহিল আমান আজমীর সংগে যোগাযোগ করা হলে তিনি হাসতে হাসতে মতিকণ্ঠকে বলেন, গাদ্দারপাড়া নামটি সুন্দর হইছে।

October 23, 2014

ভাষা গোলামকে শহীদ মিনারে লইয়া যাইতে দেতে হইবে: মতিচুর

নিজস্ব মতিবেদক

কৃত্রিম ভাবে যন্ত্রের সাহায্যে বাচিয়ে রাখা আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইবুনাল কতৃক ৯০ বতসরের আরামদন্ড প্রাপ্ত যুদ্ধাপরাধী ও বৃহত্তর জামায়াতে ইসলামীর সাবেক খানকির পোলায়ে আমীর ভাষা সৈনিক অধ্যাপক গোলাম আজমকে এন্তেকালের পর শহীদ মিনারে নিয়ে শ্রদ্ধা জানানর দাবী তুলেছেন গোলাম আজমের অবৈধ পুত্র, দেশের প্রভাবশালী এলাকা কারওয়ানবাজারের সর্দার ও ১১০% অরাজনৈতিক সংগঠন ‘হেফাজতে মাহমুদুর’ এর প্রতিষ্ঠাতা আমীর মতিচুর রহমান আজমী।

আজ কারওয়ানবাজারে নিজ কার্যালয়ে আয়জিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবী তুলেন গোলাম আজমের হারামজাদা মতিচুর রহমান আজমী।

সংবাদ সম্মেলনে আবেগঘন কণ্ঠে মতিচুর সর্দার বলেন, আমার অবৈধ পিতা গোলাম আজম ছাহেবের সংগে আমার নানা মত পার্থক্য আছিল। কিন্তু ভিন্নমতের কারনে উহাকে শহীদ মিনারে লইয়া শ্রদ্ধা জানান যাইত না, এ কেমন কথা? আমাদের মনে রাখতে হবে, লোকে তাকে ভাষা গোলাম নামেই বেশী চিনে। তিনিই একমাত্র ভাষা সৈনিক, যিনি বাংলা ভাষাকে রাস্ট্র ভাষা রুপে প্রতিষ্ঠার আন্দুলনে চেহারা দেখানর আপসোসে পরবর্তীতে পত্রিকায় লিখালিখি করিয়া দুঃখ প্রকাশ করিয়াছিলেন। এমন একজন সত বেক্তিকে শহীদ মিনারে না নিলে হেগেল, কান্ট, গ্রামশি, ফুকু, সকলের ইজ্জত যাবে।


কাদো মতি কাদো

কান্নায় ভেংগে পড়ে মতিচুর রহমান আজমী বলেন, আব্বা আছিলেন কার্ল মার্কশের একজন প্রকৃত অনুসারী। বৃহত্তর জামায়াতে ইসলামীর খানকির পুলায়ে আমীর হয়েও তিনি আজীবন ধর্মনিরপেক্ষতার চর্চা করিয়া গেছিলেন। উনার কাছে গিয়া ভলতেয়ারের নাম বললে উনি নাস্তাপানি খাওয়াইয়া দুই রাকাত নফল নামাজ পড়িয়া নাছাড়া ভলতেয়ারের জন্য আল্লাহর কাছে পানাহ চাহিতেন। আর আজ তাকেই আমরা ভিন্নমতের কারনে গালাগালি করি। সুস্থ সমাজে কখনও এরুপ আচরন কাম্য নহে।

ভাষা গোলামের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে মগবাজার কাজী অফিস এলাকার নাম পরিবর্তন করে গোলামাবাদ রাখার দাবী জানিয়ে মতিচুর সর্দার বলেন, আজ এই ইয়াতীমের দাবী কবুল করুন।

এ সময় কারওয়ানবাজারের অন্যান্য কর্মীগন তাদের সর্দারকে শান্তনা দিতে গেলে এক হৃদয়বিদারক পরিস্থিতির সৃস্টি হয়। পুনম পাণ্ডে ও সানি লিওনির এক গিগা স্থিরচিত্র অবলোকন করে আধা ঘন্টা পর মতিচুর সর্দার আবার শান্ত হন।

গোলাম আজমকে গালি না দেওয়ার অনুরধ জানিয়ে মতিচুর সর্দার বলেন, মৃত বেক্তিকে অসম্মান করিবেন না। আমি উনার সন্তান, অসম্মান করতে চাইলে আসিয়া আমার দুই গালে জুতার বাড়ি মারিয়া যাইবেন। কিন্তু মনে রাখবেন, পিতার কর্মের জন্য পুত্রের গালে জুতার বাড়ি মারা ঘোর অন্যায়।

December 12, 2013

বড় হয়ে জল্লাদ হব: গোলাম আজম

নিজস্ব মতিবেদক

আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইবুনাল ও আপীল বিভাগের নির্মম বলি, মেধাবী শিক্ষক ও বৃহত্তর জামায়াতে ইসলামীর খানকির পোলায়ে নায়েব আবদুল কাদের মোল্লা ওরফে কসাই কাদেরের মৃত্যু দন্ড কার্যকর করার জন্য নিয়জিত জল্লাদ সম্পর্কে পতৃকায় প্রকাশিত প্রতিবেদন পড়ে ভবিষ্যতে পেশা হিসাবে জল্লাদি বেছে নেওয়ার অভিলাস বেক্ত করেছেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইবুনাল কতৃক ৯০ বতসরের আরামদন্ড প্রাপ্ত যুদ্ধাপরাধী ও বৃহত্তর জামায়াতে ইসলামীর সাবেক খানকির পোলায়ে আমীর ভাষা সৈনিক অধ্যাপক গোলাম আজম।

বুধবার বংগবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের কারা কক্ষে এক অন্তরংগ সাক্ষাতকারে মতিকণ্ঠের কাছে এ অভিলাস বেক্ত করেন গোলাম আজম।

সাবেক খানকির পোলায়ে আমীর বলেন, কসাই কাদেরের ফাঁসি কার্যকর করার জন্য শাহজাহান নাম এক জল্লাদকে বাকশালী ফেসিবাদী সরকার কুথা হতে যেন যোগাড় করিয়া আনছে। পতৃকায় তার কথা পড়িয়া আমি মুগ্ধ। বড় হয়ে আমিও জল্লাদ হব।

আবেগঘন কণ্ঠে গোলাম আজম বলেন, শাহজাহান মাত্র ৪৩ বতসরের কারাদন্ড পাইছে। ফেসিবাদী সরকার তারে দিয়া এই ৪৩ বতসরে না জানি কত লোকরে ফাঁসি দিবে। বংগবন্ধুর পাচটি খুনীকে সে ফাঁসি দিয়াছে। সে জল্লাদ মহলে একজন ষ্টার। আমি তার ফেন। দেখি একদিন আরামাগার হতে বাইর হইয়া গিয়া তার অটগ্রাফ লইয়া আসব।

মন খারাপ করে গোলাম আজম বলেন, তিরিশ লক্ষ লোকের মৃত্যু ঘটাইলেও নিজের হাতে কুন ইনসানকে ফাঁসি দিয়া মারার মজা লইতে পারলাম না। তাই ঠিক করেছি বড় হয়ে জল্লাদ হব।

কারা কতৃপক্ষ তার জল্লাদ হওয়ার বাসনা পুরনে এগিয়ে আসবে, এমন আশাবাদ বেক্ত করে গোলাম আজম বলেন, আমি একটি বায়ডাটা রেডী করিয়া রাখছি, কারা মহা পরিদর্শকের নিকট জমা দিব। কারাগারে ইনশাল্লাহ ৯০ বতসরের আরামদন্ড নিয়া থাকব। ভাল বেবহার করলে ৭০ বতসরের মাথায় হয়ত মুক্তি পাইয়া যাব। এই ৭০টি বতসর জল্লাদের কাজে হাত পাকাইতে চাই।

পেশা হিসাবেও জল্লাদ খারাপ নয়, এমন অভিমত প্রকাশ করে গোলাম আজম বলেন, শাহজাহানকে মাঝে মধ্যে অন্যান্য কারাগারে হায়ার করিয়া লইয়া যায়। সে খুলনা গিয়া এরশাদ শিকদারকে ফাঁসি দিয়া আসছে। তাই এ পেশায় রয়েছে ভ্রমনেরও সুবর্ন সুযুগ। তাছাড়া যদি নিজামী কিংবা ব্রাদারফাকার সাকারে ফাঁসি দিতে পারি, হয়ত জনগন আমাকে ভালবেসে ফেলবে।

%d bloggers like this: