Posts tagged ‘ঢাবি’

September 29, 2014

ঢাবি, আই এম ইউর ফাদার: নাহিদ

নিজস্ব মতিবেদক

লক্ষ লক্ষ এ প্লাস পাওয়া ছেলেমেয়েকে ভর্তি পরীক্ষা নামক প্রহসনের নামে ফেল করিয়ে দেওয়ার জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কে তীব্র ভর্তসনা করে দেশের প্রভাবশালী এলাকা কারওয়ানবাজারের স্নেহধন্য সাবেক সিপিবি নেতা ও বর্তমান আওয়ামী লীগের উজিরে তালিম আল্লামা নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, এ প্লাস পাওয়া পুলাপানরে লই ছুদুরবুদুর ছইলত ন। সাবধান ঢাবি, নাহিদের সংগে পাংগা লইও না। মনে রেখ, আই এম ইউর ফাদার।

নিজেকে শিক্ষা জগতের ডার্থ ভেডার ঘোষনা করে নাহিদ মন্ত্রী বলেন, আজ হতে মোর নাম আবু ঢাবি।

কিছুদিন পুর্বে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘ক’ ও ‘খ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার ফল বের হলে দেখা যায়, লক্ষ লক্ষ এ প্লাস পাওয়া ছেলেমেয়ে ঢাবিতে ভর্তির যোগ্যতা অনুযায়ী পাশ মার্কও পায়নি।

ইংরাজী বিভাগে পাশ মার্ক পেয়েছে মাত্র ২ জন।


আবু ঢাবি নাহিদ

এ বেপারে ঢাবির উপাচার্য আ আ ম স আরেফিনকে দায়ী করে আবু ঢাবি নাহিদ বলেন, একটি প্রানী আছে, আমি নাম বলতে চাই না, দাত গজাইলে আগে বাপের পুটুতে কামড় দিয়া দাতের ধার পরীক্ষা করে। আমি আবু ঢাবি যাদের এ প্লাস দিলাম, ঢাবি তাদের কুন সাহসে ফেল করায়?

এ ধরনের ‘ছুদুরবুদুর’ ঠেকাতে আইন করার হুমকি দিয়ে শিক্ষা জগতের ডার্থ ভেডার বলেন, এত পরীক্ষা কিসের? কুন পরীক্ষা লাগত না। আমার দেওয়া এ প্লাস দেখাইবে, আর বিশ্ববিদ্যালয় চাহিবা মাত্র এ প্লাসের বাহককে ভর্তি করিতে বাধ্য থাকিবে। ইহার বেতিক্রম করিলেই ফাসি।

ছাত্রছাত্রীদের উদ্দেশ করে আবেগঘন কণ্ঠে নাহিদ মন্ত্রী বলেন, এত শিক্ষা দিয়া কি হবে? বেশি লিখাপড়া না করিয়া সিপিবিতে ঢুকিয়া পড়। তারপর এক সময় সিপিবির বড় নেতা হওয়ার চেস্টা কর। তারপর ক্লাব ফুটবলের খেলয়াড়দের নেয় সিপিবি হতে বাকশালে ট্রেন্সফার লও। তারপর শিক্ষামন্ত্রী হও। শিক্ষক বদলী ও অন্যান্য খাতে টেকাটুকা যা পাইবা, লিখাপড়া করিয়া সারা জীবনেও তত টেকা কামাইতে পারবা না।

ঢাবিকে কুলাংগার সন্তানের সংগে তুলনা করে শিক্ষা জগতের ডার্থ ভেডার বলেন, উখানে শুদু গন্ডগুল হয়।

নাহিদ মন্ত্রীর বক্তব্যের প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে ঢাবির উপাচার্য আ আ ম স আরেফিন বলেন, বাম যখন আমে আসে, গু পচা গন্দ বাইর হয়।

April 27, 2011

বৃটিশ হাইকমিশনারের কাছে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানালেন ঢাবি উপাচার্য

বিশেষ মতিবেদক

ঢাকাস্থ বৃটিশ হাই কমিশনার স্যার রবার্ট ক্লাইভের কাছে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য আ আ ম স আরেফিন।

উপাচার্যের কার্যালয়ের সীলমোহর অঙ্কিত ও উপাচার্য কর্তৃক টিপসইকৃত এই প্রতিক্রিয়া বার্তাটি সম্প্রতি উইকিলিকস মারফত মতিকণ্ঠের হাতে এসে পৌঁছেছে।

দুই পৃষ্ঠার এই আবেগঘন পত্রে উপাচার্য আরেফিন বৃটিশ হাই কমিশনারকে অনুরোধ করেছেন, অবিলম্বে যেন যুক্তরাজ্য সরকার অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়কে হালনাগাদ করে।

উপাচার্য ক্ষোভ প্রকাশ করে লেখেন, তিনি লক্ষ্য করেছেন, অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে টেন্ডার নিয়ে কোন মারামারি হয় না। সেখানে ছাত্রলীগ বা ছাত্রদলও নাই। হল দখল নিয়ে খুনাখুনি ও পুটু মারামারিও অক্সফোর্ডে দীর্ঘদিন যাবত স্থগিত।

উপাচার্য বলেন, একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে কোনরূপ হল দখল নাই, মারামারি নাই, সন্ত্রাস নাই, চাদাবাজির বখরা নিয়ে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া নাই, এটি অবিশ্বাস্য। এটি কখনই মেনে নেয়া যায় না।

উপাচার্য লিখেছেন, “আপনি হয়ত অবগত আছেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রাচ্যের অক্সফোর্ড হিসেবে সুবিখ্যাত। তাই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সুনামের দিকে লক্ষ্য রেখে আপনারা অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে কিছু সংস্কৃতিগত পরিবর্তন আনবেন, আমি এমনটিই আশা করি।”

উপাচার্য চিঠিতে বৃটিশ কমিশনারকে হুমকি দিয়ে বলেন, অবিলম্বে অক্সফোর্ডে হলের সিট বরাদ্দ নিয়ে কোন মারামারি না হলে তিনি নিজে ছাত্রলীগ কর্মীদের নিয়ে ঢাকাস্থ বৃটিশ হাই কমিশন ঘেরাও করবেন।

Tags:
%d bloggers like this: