Posts tagged ‘নাহিদ’

November 28, 2014

জাফর ইকবালের হাত ভেংগে দিব: নাহিদ কোবরা

নিজস্ব মতিবেদক

শাহাজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক অধ্যাপক মুহম্মদ জাফর ইকবালকে পাবলিক পরীক্ষার প্রশ্ন ফাস নিয়ে বাড়াবাড়ি না করার হুমকি দিয়ে দেশের প্রভাবশালী এলাকা কারওয়ানবাজারের স্নেহধন্য সাবেক সিপিবি নেতা ও বর্তমান বাকশালের উজিরে তালিম আল্লামা নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, প্রশ্ন ফাসে কেউ হাত দিবি না। হাত ভেংগে দিব।

আজ বাদ জুম্মা মিন্টু রোডে নিজ বাসভবনে আয়জিত এক সংবাদ সম্মেলনে উজিরে তালিম এ হুমকি দেন।

সংবাদ সম্মেলনে নাহিদ বলেন, বাংগালী অদ্ভুদ। এত্ত এত্ত গরম খবর থাকতে তারা হাউকাউ করে ক্লাশ ফাইবের পাবলিক পরীক্ষার প্রশ্ন ফাস লইয়া। আরে সালা ঘোচুর দল, এই যে হজ বিরুধী লতিফ সিদ্দিকী দেশে ফিরত আসিয়া জেলে ঢুকিল, এই খবর লইয়া বেস্ত থাক না কেনে? ক্লাশ ফাইবের পরীক্ষার প্রশ্ন ফাস হইলে তুমাদিগের জ্বলে কেনে?

আবেগঘন কণ্ঠে সাবেক আমীরে ছাত্র ইউনিয়ন নাহিদ বলেন, আমার বাসস্থান পুন্যভুমি সিলেটে একটি নালায়েক আস্তানা গাড়িয়াছে। উহার নাম জাফর ইকবাল। ক্লাশ ফাইবের পরীক্ষা লইয়া পুলিশ রেব বিজিবি চুপ, সেনা বাহীনী নৌ বাহীনী বিমান বাহীনী চুপ, এমনেষ্টি হিউমেন রাইট ওয়াচ জাতিসংঘ চুপ, আলজাজিরা সাইদা ওয়ারশি ষ্টিফেন রেপ চুপ, সৌদী ইংরাজ মার্কিন চুপ, আল্লামা শফী আল্লামা আনু আল্লামা বড় গুণ্ডে চুপ, ক্লাশ ফাইবের পুলাপান ও উহাদের বাপমা ভি চুপ, আর এই সালা ঘোচু জাফর ইকবাল খালি একা একা চিল্লায়। ক্লাশ ফাইবের পরীক্ষার প্রশ্ন ফাস হইলে চিল্লাইতে পারে এক মাত্র ক্লাশ সিক্সের শিক্ষক। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক হইয়া তুমি বেটা ঘোচু এত চিল্লাও কেনে? দিব নাকি বিশ্ববিদ্যালয় হইতে কুন থানার ইস্কুলে ক্লাশ সিক্সে বদলী করিয়া?


পদকহারাম জাফর ইকবাল

হুহু করে কেদে উঠে উজিরে তালিম বলেন, জাফর ইকবাল বাংগালী জাতির বুকে একটি অভিশাপ। উহাকে কিছুদিন পুর্বে একটি পদক দিলাম, পরীক্ষা ফাস বিষয়ক একটি কমিটিতেও মেম্বর করিয়া দিলাম। কিন্তু সালা পদকহারাম থামে না।

ভবিষ্যতে আবার প্রশ্ন ফাস নিয়ে কথা বললে জাফর ইকবালের হাত ভেংগে দেওয়ার অংগীকার করে নাহিদ বলেন, অন্যায় যে করে আর অন্যায় যে সহে, উভয়ে যেন সাবধানে রহে। প্রশ্ন ফাস নিয়া জাফর ইকবাল কথাবার্তা বলিয়া যে অন্যায় করছে, তাহা এতদিন সহ্য করছি। আর করব না। এর পর যদি আর একটাও কথা চলে, জাফর ইকবালের হাত ভাংগিয়া দুই টুকরা করিব।

অবিলম্বে হাত ভাংগার উপর সদ্য গঠিত রাজনৈতিক দল বাবুনাগরিক শক্তির আমীর, বাংলাদেশের একমাত্র নোবেল বিজয়ী অর্থনীতীবীদ ও গ্রামীন বেংকের বিতাড়িত মালিক ‘অর্থনীতীর সানি লিওনি’ কায়েদে নোবেল রোহিংগা রাজ ড. মুহম্মদ ইউনূস বাবুনগরীর কাছ থেকে প্রশিক্ষন গ্রহনের কথা জানিয়ে উজিরে তালিম বলেন, ছাত্র জীবনে কুংফু কেরাতি কম করি নাই। ব্রুশ লির সকল চলচিত্র গুলিয়া ভক্ষন করছি। ঘনিস্ট বন্ধুরা এখনও আমায় নাহিদ কোবরা বলিয়া ডাকে। প্রশ্ন ফাসে বাধা দিয়া কচি কচি ছেলেমেয়েদের ভবিষ্যত নস্ট করতে চাইলে আগে নাহিদ কোবরার সংগে মকাবিলা করতে হবে।

সংবাদ সম্মেলনের শেষে নুরুল ইসলাম নাহিদ মাথা দিয়ে চারটি ইট ভেংগে সাংবাদিকদের মনরঞ্জন করেন।

September 29, 2014

ঢাবি, আই এম ইউর ফাদার: নাহিদ

নিজস্ব মতিবেদক

লক্ষ লক্ষ এ প্লাস পাওয়া ছেলেমেয়েকে ভর্তি পরীক্ষা নামক প্রহসনের নামে ফেল করিয়ে দেওয়ার জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কে তীব্র ভর্তসনা করে দেশের প্রভাবশালী এলাকা কারওয়ানবাজারের স্নেহধন্য সাবেক সিপিবি নেতা ও বর্তমান আওয়ামী লীগের উজিরে তালিম আল্লামা নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, এ প্লাস পাওয়া পুলাপানরে লই ছুদুরবুদুর ছইলত ন। সাবধান ঢাবি, নাহিদের সংগে পাংগা লইও না। মনে রেখ, আই এম ইউর ফাদার।

নিজেকে শিক্ষা জগতের ডার্থ ভেডার ঘোষনা করে নাহিদ মন্ত্রী বলেন, আজ হতে মোর নাম আবু ঢাবি।

কিছুদিন পুর্বে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘ক’ ও ‘খ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার ফল বের হলে দেখা যায়, লক্ষ লক্ষ এ প্লাস পাওয়া ছেলেমেয়ে ঢাবিতে ভর্তির যোগ্যতা অনুযায়ী পাশ মার্কও পায়নি।

ইংরাজী বিভাগে পাশ মার্ক পেয়েছে মাত্র ২ জন।


আবু ঢাবি নাহিদ

এ বেপারে ঢাবির উপাচার্য আ আ ম স আরেফিনকে দায়ী করে আবু ঢাবি নাহিদ বলেন, একটি প্রানী আছে, আমি নাম বলতে চাই না, দাত গজাইলে আগে বাপের পুটুতে কামড় দিয়া দাতের ধার পরীক্ষা করে। আমি আবু ঢাবি যাদের এ প্লাস দিলাম, ঢাবি তাদের কুন সাহসে ফেল করায়?

এ ধরনের ‘ছুদুরবুদুর’ ঠেকাতে আইন করার হুমকি দিয়ে শিক্ষা জগতের ডার্থ ভেডার বলেন, এত পরীক্ষা কিসের? কুন পরীক্ষা লাগত না। আমার দেওয়া এ প্লাস দেখাইবে, আর বিশ্ববিদ্যালয় চাহিবা মাত্র এ প্লাসের বাহককে ভর্তি করিতে বাধ্য থাকিবে। ইহার বেতিক্রম করিলেই ফাসি।

ছাত্রছাত্রীদের উদ্দেশ করে আবেগঘন কণ্ঠে নাহিদ মন্ত্রী বলেন, এত শিক্ষা দিয়া কি হবে? বেশি লিখাপড়া না করিয়া সিপিবিতে ঢুকিয়া পড়। তারপর এক সময় সিপিবির বড় নেতা হওয়ার চেস্টা কর। তারপর ক্লাব ফুটবলের খেলয়াড়দের নেয় সিপিবি হতে বাকশালে ট্রেন্সফার লও। তারপর শিক্ষামন্ত্রী হও। শিক্ষক বদলী ও অন্যান্য খাতে টেকাটুকা যা পাইবা, লিখাপড়া করিয়া সারা জীবনেও তত টেকা কামাইতে পারবা না।

ঢাবিকে কুলাংগার সন্তানের সংগে তুলনা করে শিক্ষা জগতের ডার্থ ভেডার বলেন, উখানে শুদু গন্ডগুল হয়।

নাহিদ মন্ত্রীর বক্তব্যের প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে ঢাবির উপাচার্য আ আ ম স আরেফিন বলেন, বাম যখন আমে আসে, গু পচা গন্দ বাইর হয়।

September 16, 2014

মন্ত্রী নাহিদের উপর নাখোশ পুলিশ পরিদর্শক বৃন্দ

নিজস্ব মতিবেদক

সিপিবির সাবেক নেতা ও বর্তমানে ফেসিবাদী বাকশালের শিক্ষা মন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদের উপর নাখোশ হয়ে আছেন ঢাকা মেট্রপলটন পুলিশ পরিদর্শক বৃন্দ।

মংগলবার সন্ধায় ঢাকা মেট্রপলটন পুলিশ কমিশনারের কার্যালয়ে লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষা দিয়ে এ ক্ষোভ প্রকাশ করেন ঢাকা মেট্রপলটন পুলিশের ৫৭ জন পরিদর্শক।

ঢাকা মেট্রপলটন পুলিশের গন মাধ্যম শাখার উপ কমিশনার মাসুদুর রহমানের সংগে যোগাযোগ করলে তিনি নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, জীবনটাই একটা পরীক্ষা। আর আমাদিগের হাতে পাওয়া তথ্য মতে আমাদিগের পরিদর্শকরা জীবীত। কাজেই তারা জীবীত কিনা, এই পরীক্ষার মাধ্যমে তা পরীক্ষা করা হচ্ছে।

মতিকণ্ঠের প্রশ্নের জবাবে মাসুদ ডিসি বলেন, এ পরীক্ষায় আইন-কানুন, কায়দা-কৌশল, আচার-বেবহার, তমিজ-তোয়াজ ইত্যাদি সহ বিভিন্ন বিষয় পরীক্ষা করা হবে। পাশ করতে পারলে পরিদর্শকদের ওসি বানান হবে। ফেল করলেও ওসি বানান হবে, তবে তাতে ওসি বনার বেয় বৃদ্ধি পাবে।


আসল কাজ বাদ দিয়ে নাটকে বেস্ত নাহিদ

এদিকে পরীক্ষার পর পরিদর্শকদের কয়েক জনের সংগে যোগাযোগ করা হলে তারা মতিকণ্ঠের কাছে মন্ত্রী নাহিদের প্রতি বেপক ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক পরিদর্শক বলেন, আমাদিগের আজ পরীক্ষা। গতকাল রাত হতে একটু পর পর ফেসবুক খুলিয়া পেজ ঘাটতেছি, কিন্তু কোথাও কুন প্রশ্ন ফাস হয় নাই। এতেই প্রমানিত হয়, মন্ত্রী নাহিদ সঠিক ভাবে তার দায়িত্ব পালন করতেছে না।

আরেক পরিদর্শক মন্ত্রী নাহিদকে ‘সালা ঘোচু’ গালি দিয়ে গালি প্রকাশ করার অনুরধ ও নাম প্রকাশ না করার অনুরধ জানিয়ে বলেন, আমাদিগের আজ পরীক্ষা, অতছ গত কয়েক দিন ধরিয়া টাকলা নাহিদ বাংলাবাজারে নাটকের রিহার্সাল দিছে। আরে সালা ঘোচু তুই আগে কই পরীক্ষার প্রশ্ন সামলাবি, তা না করিয়া তুই বাংলা বাজারে এক মাস আগে নটিস দিয়া আকস্মিক অভিযানের নাটক করিস কেনে?

নাম গোপন রাখার শর্তে আরেক পরিদর্শক বলেন, আমরার পরীক্ষা অত্যান্ত খারাপ হইছে। কুন প্রশ্ন কমন পড়ে নাই। প্রশ্ন আইছে, আইন কারে বলে? আইনের হাত কত লম্বা? আইন কার হাতে থাকে? আমরা আসমান হতে মাটিতে পড়ছি। আমি লিখছি, থানার ওসি ও এলাকার সরকারী নেতার মুখের কথাই আইন। আইনের হাত অনেক লম্বা। আর আইন এত গরম যে কারও হাতেই থাকে না, এই কারনেই কুথাও ভাল মানুষের হাতে বদ মানুষ পিটানী খাইলে আমরা গিয়া বলি, আইন নিজের হাতে তুলিয়া লইবেন না।

ঢাকা মেট্রপলটন পুলিশ কমিশনারের কার্যালয়ের বাইরে বিক্ষোভ রত আরও কয়েকজন পরিদর্শক বলেন, পরীক্ষা হইছে যেমন তেমন, গল্ডেন এ প্লাস না পাইলে মন্ত্রী নাহিদের কার্যালয় ঘেরাও দিব।

বিক্ষোভ রত এক পুলিশ পরিদর্শক বলেন, আমার পুলা এইবার ইন্টার দিল। ফেসবুকে সব প্রশ্ন সে আগে আগে পাইছে, গল্ডেন এ প্লাসও পাইছে। এখন আমি তার বাপ হইয়া যদি পরীক্ষায় গল্ডেন না পাই, বাসায় গিয়া মুখ দেখাব কি করিয়া?

এ বেপারে মন্ত্রী নাহিদের সংগে যোগাযোগ করা হলে তিনি হাসতে হাসতে বলেন, দেশ এগিয়ে যাচ্ছে, শিক্ষা বেবস্থা এগিয়ে যাচ্ছে, এখন ঠোলারাও পরীক্ষা দেয়। এখন তারা ফেসবুকে ফাস হওয়া প্রশ্নের খোজে লেপটপ চার্জ দেয়। অতছ আমরার আমলে ঠোলারা শুধু লাঠি চার্জ করত।

ভবিষ্যতে ঢাকা মেট্রপলটন পুলিশ কার্যালয়ের পরীক্ষা হলে ‘আকস্মিক অভিযান’ চালানর অংগীকার করে নাহিদ মন্ত্রী বলেন, পুলিশ কমিশনারের সংগে এই আকস্মিক অভিযান নিয়া আমার আলাপ হইছে। তারিখ নিয়া এখনও কথাবার্তা চলতেছে। এই পরীক্ষা হইছে যেমন তেমন, আগামী পরীক্ষার প্রশ্ন সময় মত ফেসবুকে পাওয়া যাইবে।

%d bloggers like this: