Posts tagged ‘পুটু’

April 11, 2014

ইউ ন নাথিং, পুটু: মকসুদ

নিজস্ব মতিবেদক

রাজনীতীবীদদের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করে ইতিহাসে বিনা মুল্যে আংগুল না দেওয়ার আহোভান জানিয়ে উপমহাদেশের বিখ্যেত ইতিহাসবীদ, কলামিষ্ট ও গান্ধীবাদী আন্দোলনের প্রবাদ পুরুষ সৈয়দ আবুল মকসুদ বলেছেন, ইতিহাসকে বিনা পয়সার রাজনীতীর বাইরে রাখুন।

শুক্রবার সকালে নিজ বাস ভবনে আয়জিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ আহোভান জানান মকসুদ। এ সময় তার পোষা ছাগল পুটু সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন।

ইতিহাসবীদ মকসুদ বলেন, কয়েক মাস ধরিয়া শুরু হইছে এক নতুন খেল। আমরা যারা উপমহাদেশের বিখ্যেত ইতিহাসবীদ, কলামিষ্ট ও গান্ধীবাদী আন্দোলনের প্রবাদ পুরুষরা আছি, তাহাদের কুন পাত্তা না দিয়া, তাহাদের সংগে পরামিশ না করিয়া, তাহাদের উপযুক্ত হাদিয়া না দিয়া কতিপয় রাজনীতীবীদ দেশে ও বিদেশে বসিয়া ইতিহাসে বিনা মুল্যে আংগুল দিতেছেন।

আবেগঘন কণ্ঠে মকসুদ বলেন, এভাবে চলতে পারে না।


ইতিহাসে আংগুল দিতে হলে ইতিহাসবীদকে মুল্য দিতে হবে

অশ্রু মুছে সৈয়দ আবুল মকসুদ বলেন, আগে ভাবতাম শুদু পাঠকই আমায় সস্তা পায়। কিন্তু এখন দেখতেছি রাজনীতীবীদরা আমায় মাগনা পাইতেছেন। একাত্তরের রেম্ব জিয়া ভাইকে দেশের প্রথম রাস্ট্রপতি বানান হইল, কিন্তু কুন অনুস্ঠানে বক্তিতা বিবৃতীর ডাক পাইলাম না। বংগবন্ধু মুজিব ভাইকে দেশের প্রথম অবৈধ প্রধান মন্ত্রী বানান হইল, কিন্তু লনডনে যাওনের টিকেট ত দুরের কথা, ধানমন্ডি হতে গুলশান যাওনের পেট্রল খরচটাও হাতে আইল না।

হুহু করে কেদে উঠে মকসুদ বলেন, উপমহাদেশের বিখ্যেত ইতিহাসবীদ হইয়াও যদি একটু আদর, একটু কদর না পাই, তাহলে চলিব কিরুপে? রাজনীতীবীদরা আগে অর্থনীতীর টেন পারসেন্ট খাইতেন, সাংগপাংগদেরও এক দুই পারসেন্ট খাওয়ার তৌফিক দিতেন। কিন্তু এখন উনারা ইতিহাসের ফিপটিন পারসেন্ট খাইতেছেন, আমাদিগকে কিছু না দিয়া।

আবেগ দমন করে গান্ধীবাদী আন্দলনের অগ্র সেনানী বলেন, ইতিহাসকে ‘হাওয়া’ করিয়া দিতে চান ভাল কথা। কিন্তু সে কাম পেশাদার ইতিহাসবীদ দিয়া করান। নিজের চুল যেমন নিজে কর্তন করা ঠিক নহে, নিজের ইতিহাসও নিজে ‘হাওয়া’ করা ভাল নহে। দুই চার হাজার পাউন্ড এদিকে ঠেলিয়া দিন। কুথায় কারে বসাইতে হবে, সব ঠিক করিয়া দিব।

আবার হুহু করে কেদে উঠে মকসুদ বলেন, পপেশনালদের পিছন থেকে গুলি করা মানায় না মাষ্টার।

এ সময় মকসুদের পোষা ছাগল পুটু উসখুস করে উঠলে মকসুদ তাকে ধমক দিয়ে বলেন, ইউ ন নাথিং, পুটু। উইন্টার ইজ কামিং।

April 17, 2012

মাসবেপী অনশন করবেন মকসুদ

অনশন মতিবেদক

দেশের প্রভাবশালী এলাকা বসুন্ধরার দুর্নীতির প্রতিবাদে মাসবেপী অনশন করবেন দেশের বিশিষ্ঠ ইতিহাসবীদ, কলামিষ্ট ও বাংলার গান্ধীবাদী আন্দোলনের অগ্র সেনানী সৈয়দ আবুল মকসুদ।

আজ এক সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষনা দেন মকসুদ।

সৈয়দ আবুল মকসুদ বলেন, আপনারা সকলে জানেন, বসুন্ধরা মংলা বন্দরের জেটি বেবহার করে কুটি কুটি টেকার বেবসা করে। কিন্তু তারা লেন্ডিং চার্জ দেয় না। দশ বছর ধরে তারা লেন্ডিং চার্জের পয়সা বাকি রেখেছে। মংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ তাদের কাছ থেকে কুটি কুটি টেকা পাওনা। কিন্তু বসুন্ধরা একটি অভিশাপ। তারা টেকাটুকা দেয় না। তারা মাগনা মাগনা মংলা বন্দর বেবহার করে দেশটার পুটু মারছে। কেউ প্রতিবাদ করে না। কেউ কলাম লিখে না। কেউ মানব বন্ধন করে না। বসুন্ধরার কারনে আজ দেশে নিরব দুর্ভিক্ষ চলছে। ক্ষুধার্ত মা কোলের শিশুকে বিক্রি করে দিচ্ছে। ক্ষুধার্ত প্রেমিক প্রেমিকাকে ভাড়া দিচ্ছে পয়ষট্টি টাকায়। এভাবে চলতে পারে না। আমি মাসবেপী অনশন করব।

মাসবেপী অনশন করবেন বাংলার গান্ধী

মাসের ১৬ তারিখে এসে কেন মাসবেপী অনশন করছেন, এ প্রশ্নের জবাবে মকসুদ বলেন, আমি ইংরেজী মাসবেপী অনশন করব না।

বাংলা মাসবেপী অনশন করবেন কি না জিজ্ঞাসার জবাবে মকসুদ বলেন, আমি পুর্ব বংগের মুসলিম। আমি মুসলিম মাস, অর্থাত হিজরী মাস ধরে অনশন করব। তিনি ২৩শে জমাদিউল আউয়াল থেকে ২৯শে জমাদিউল আউয়াল পর্যন্ত আমরন অনশন করবেন বলে মকসুদ জানান।

সাগর-রুনী হত্যাকান্ডের বেপারে কি করবেন প্রশ্ন করা হলে মকসুদ বলেন, আরে ধুত্তেরি সাগর-রুনী।

ডেসটিনি গ্রুপের প্রতারনার বেপারে কি করবেন প্রশ্ন করা হলে মকসুদ বলেন, আরে ধুত্তেরি ডেসটিনি।

আই এস আই কর্তৃক খালেদা জিয়াকে ৫০ কুটি রুপী উপহারের বেপারে কি করবেন প্রশ্ন করা হলে মকসুদ বলেন, আরে ধুত্তেরি আই এস আই খালেদা।

আরও প্রশ্ন করার আগেই উত্তেজিত মকসুদ বলেন, আপনারা এইসব ফালতু জিনিস নিয়ে মাথা গরম করেন কেন। বসুন্ধরা লেন্ডিং চার্জ দেয় না, এর গুরুত্ব কি আমনেরা আমাত্তে বেশি বুজেন?

পরে আইসকৃম খেয়ে মকসুদ শান্ত হন। এ সময় সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি হাসিমুখে বলেন, না, আমার পোষা ছাগল পুটু অনশন করবে না। সে না খেলে দুধ দিবে কি করে? তার দুধ না খেলে রাতে আমার ঘুম হয় না।

November 23, 2011

অবসরে পুটুর লোম ছাঁটি: মকসুদ

বিশেষ মতিনিধি

বিশিষ্ট ইতিহাসবিদ, কলামিষ্ট ও গান্ধীবাদী আন্দোলনের প্রবাদ পুরুষ সৈয়দ আবুল মকসুদ এক অন্তরঙ্গ সাক্ষাতকারে মতিকণ্ঠকে বলেন, “আমি অবসরে পুটুর লোম ছাঁটি। পুটুর লোম ছেঁটে পুটুকে পরিচ্ছন্ন রাখতে আমার ভাল লাগে।”

এর আগে সংবাদ সম্মেলনে প্রবীন ইতিহাসবিদ মকসুদ ঘোষনা দেন, প্রিন্সিপাল ইব্রাহীম খাঁ বিরচিত অমর কথাসাহিত্য “পুটু” অবলম্বনে তিনিও তাঁর পোষা ছাগলটির নাম রেখেছেন পুটু। আকীকা উপলক্ষে তিনি একটি খাসীও জবেহ করেন।

জনাব মকসুদের বাসভবনে গিয়ে দেখা যায়, তিনি কাঁচি হাতে নিজেই পুটুর লোম ছেঁটে দিচ্ছেন।

মতিনিধিকে তিনি স্মিত হেসে বলেন, “পুটুর লোম বড় হয়ে তাতে পোকা মাকড়, উকুন শকুনের উতপাত শুরু হোক, তা আমি চাই না।”

নিজ হাতে ছাঁটা মোর কচি পুটু খাসা: মকসুদ

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, দেশের সবারই উচিত পুটুর লোম সুন্দর করে ছেঁটে পরিষ্কার রাখতে সহায়তা করা। পুটুর লোম বড় হয়ে গেলে তা অহিংস আন্দোলনের পথে বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারে।

এ ব্যাপারে পুটু কোন মন্তব্য করতে রাজি হননি।

ওদিকে এক পৃথক সংবাদ সম্মেলনে বিশিষ্ট ইসলামী চিন্তাবিদ ও ইসলামী আন্দোলনের নায়ক গৃহবন্দী মুফতি ফজলুল হক আমিনী মকসুদ কর্তৃক পুটুর লোম ছাঁটার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, “মকসুদ দেশে নাছারাদের সংস্কৃতি আমদানী করতে চায়। ছাগলের দাড়ি লোম ইত্যাদি ছাগলের পবিত্র সম্পদ। মকসুদ কোন সাহসে পুটুর লোম ছেঁটে দিল?”

লোম কিভাবে পবিত্র সম্পদ হয়, এ প্রশ্নের জবাবে ক্ষিপ্ত হয়ে আমিনী বলেন, “আমনে পুটুর লোম আমাত্তে বেশি বুজেন?”

%d bloggers like this: