March 8, 2014

কারওয়ানবাজারে বদলের হাওয়া

April 22, 2014

বাধ ভেংগে খসে গেল মমতার জল: ফখরুল

নিজস্ব মতিবেদক

বৃহত্তর জামায়াতের বিএনপি শাখার ভাঁড়প্রাপ্ত নায়েবে আমীর, জাতীয়তাবাদী শক্তির ‘কমপ্লান বয়’ ও বড় গুন্ডে কতৃক ‘হাইড এন্ড সিক’ কলংকে ভুষিত মির্জা বাড়ির বড় গৌরব মির্জা ফখরুল ইসলাম আগুনগীর ওরফে ফখা ইবনে চখা বলেছেন, বৃহত্তর জামায়াতের লং ড্রাইভে আতংকিত হয়ে ইনডিয়া তিস্তা নদীতে পানি ছাড়িছে। এতদিন পচ্চিম বংগের মুখ্য মন্ত্রী মমতা বেনারজি এই জল বাধ দিয়া আটকাইয়া রাখছিল। আজ বৃহত্তর জামায়াতের লং ড্রাইভ সামলাইতে না পারিয়া বাধ ভেংগে খসে গেল মমতার জল।

আজ গাইবান্ধায় লং ড্রাইভের ফাকে এক বিরতিতে আয়জিত পথ সভায় আগুনগীর এ কথা বলেন।

ফখা ইবনে চখা বলেন, মেঘপিয়নের বেগের ভিতর মন খারাপের দিস্তা, মন খারাপ হলে কুয়াশা হয় বেকুল হলে তিস্তা। আমরা গদিতে নাই। আমাদের মন শুদু খারাপ নহে, মন বেকুল। কিন্তু মমতা বেনারজির কারনে তিস্তায় কুন পানি নাই। সে একটি অভিশাপ।


বাংলার বিপ্লবী ফখেল কেষ্ট্র

আবেগঘন কণ্ঠে আগুনগীর বলেন, বাকশালের মহিলা আমীর শেখের বেটীর উপর মমতা বেনারজির রাগ। কারন কাজিয়া বিবাদে সে এখনও শেখের বেটীর সমান হইতে পারে নাই। তাই সেই হিংসায় জ্বলিয়া পুড়িয়া মমতা বেনারজি তিস্তা নদীতে বাধ দিয়া সকল জল আটক করিয়া রাখছে। কিন্তু বৃহত্তর জামায়াতের লং ড্রাইভের ঠেলায় আজ এক কিউসেক নয় দুই কিউসেক নয়, তিন হাজার কিউসেক জল তিস্তা নদীতে জামিনে মুক্তি পাইছে।

হাসতে হাসতে মির্জা বাড়ির বড় গৌরব বলেন, বৈশাখের গরমে ঢাকা শহরে থাকা মুশকিল। ফিরিজে যত মামের বুতল ছিল সব শেষ করিয়া ফেলছি। তখন কয়েকজন নায়েবে আমীর বলল, ফখা ভাই চলেন বিএনপি শাখার খরচে ঠাকুরগাও যাই। এখন আম কাঠালের সিজন। লং ড্রাইভও হবে, আবার আপনার গ্রামের বাড়িতে পিকনিকও হবে। আমি বললাম, খেলার সংগে রাজনীতী মিশান কি ঠিক? তারা আমায় তখন বলল, এই কারনেই আপনি এখনও ভাঁড়প্রাপ্ত রইছেন, প্রমুশন পাইতেছেন না।

ভারতের প্রতি হুশিয়ারী জারী করে ফখা বলেন, এই গরমে রোজ রোজ যমুনা সেতুতে টল দিয়া লং ড্রাইভ করতে পারতাম না। আজকে একবার দিয়া গেলাম। আমি যেই কয়দিন ঠাকুরগাও অবস্থান করব, সেই কয়দিন তিস্তায় নিয়মিত জল না খসাইলে খবরই আছে।

মমতা বেনারজির প্রতি বন্ধুত্বের হাত বাড়িয়ে দিয়ে ফখরুল বলেন, মমতা বেনারজি আমার মামাত বোনেরঝির নেয় আপন। এস ভাই এস বোন গড়ে তুলি আন্দুলোন।

April 21, 2014

গেবরিয়েল গাউছিয়া মার্কেট নাই, আমি ত আছি: আমিষুল

নিজস্ব মতিবেদক

কলমবিয়ার খেতনামা নোবেল বিজয়ী সাহিত্যিক গেবরিয়েল গারছিয়া মারকেজের মৃত্যুতে আনন্দ প্রকাশ করে প্রভাবশালী এলাকা কারওয়ানবাজারের উপসর্দার ও আইভরী কোষ্ট ফিরত উপন্যাসিক আল্লামা আমিষুল হক পুটুনদা বলেছেন, চলার পথের একটি বড় কাটা দুর হল। এইবার নোবেল না দিয়া যাবি কই?

আজ কারওয়ানবাজারে নিজ কার্যালয়ে আয়জিত এক সংবাদ সম্মেলনে পুটুনদা এ আনন্দ প্রকাশ করেন।

আমিষুল বলেন, গেবরিয়েল গাউছিয়া মার্কেট আর নাই। কিন্তু আমি ত আছি। সাহিত্য অনুরাগীদের কুন সমস্যা হইবে না। নিসংগতার একশ বতসরের বদলে তুমরা পড়বে অন্ধকারের একশ বতসর। কর্নেলকে কেউ চিঠি লেখে নার বদলে তুমরা পড়বে প্রতি বৃহস্পতিবারে আমাদিগের বাড়িতে চুর আসে। কলেরার সময়ে প্রেম শুধু আইসিডিডিআরবিতে পাঠ করলেই চলবে। বাকি বাংলাদেশ পড়বে আমার রচিত ফৃডমস মাদার।


গেবরিয়েল আউট, আমিষুল ইন: আমিষুল

আবেগঘন কণ্ঠে আমিষুল হক বলেন, এই গেবরিয়েল গাউছিয়া মার্কেটের উতপাতে এতডি বতসর ঠিক মত সাহিত্য করতে পারি নাই। যেখানেই যাই লোকে শুদু তার নাম বলে। লস এনজেলসে এক বইয়ের দুকানে গেলাম। ভাবলাম তারা আমার ছবি তুলবে। কিন্তু একটি কর্মচারী আসিয়া আমায় কহিল, তুমি কি জান ডুড, এই দুকানে যে গেবরিয়েল গাউছিয়া মার্কেট আসিয়াছিলেন? আমি তাকে বললাম, এই নেও পাছ ডলার। মিস্টি কিংবা মদ, যা মনে চায় খাইও। কিন্তু আর এইভাবে গেবরিয়েল গাউছিয়া মার্কেটের বিজ্ঞাপন দিও না। এখন হতে তুমার অন্যান্য খরিদ্দারদিগকে বলবা যে তুমার দুকানে আমিষুল হক পুটুনদা আসিয়াছিলেন।

হাসতে হাসতে পুটুনদা বলেন, আমার বয়স যখন ১৭ তখন গেবরিয়েলের বাচ্চা নোবেল পাইল। ভাবলাম দুই চার বছর পরেই সে ইন্তেকাল করবে, তারপর আমিই হব বড় সাহিত্যিক। আজ আমার বয়স ৬৩ বতসর। এতগুলি বতসর সে হরলিকস খাইয়া টিকিয়া গেল। আর আমার সাহিত্য করার পথেও বাবলার কাটা বিছাইয়া দিয়া গেল। আল্লাহ পাকের অশেষ মেহেরবানী সে আর নাই।

আনন্দে হুহু করে কেদে উঠে আমিষুল বলেন, হুমায়ুনও নাই গেবরিয়েলও নাই কেমন মজা হবে।

April 20, 2014

হেফাজতের জমি চুরি, হাটহাজারিস্তানের আয়তন ২.৬৪ একর বৃদ্ধি

হাটহাজারী আল-মতিবেদক

বাংলাদেশের অভ্যন্তরে অবস্থিত স্বাধীন রাস্ট্র হাটহাজারিস্তানের আয়তন ২.৬৪ একর বৃদ্ধি পেয়েছে।

আর এই অতিরিক্ত ২.৬৪ একর ভুমি বাংলাদেশের নাস্তিক রেলওয়ের কাছ থেকে চুরি করা হয়েছে বলে নাস্তিক রেলওয়ে কতৃপক্ষ অভিযোগ তুলেছে।

মতিকণ্ঠের সরজমিন অনুসন্ধানে দেখা যায়, হাটহাজারী ষ্টেশনের অদুরে ১৬০ কাঠা বা ২.৬৪ একর জমি খুটি দিয়ে ঘিরে হাটহাজারিস্তানের সিমানা বৃদ্ধি করেছে প্রভাবশালী হাটহাজারিস্তানের তালেবান সেনা বাহিনী।

এ বেপারে হাটহাজারিস্তানের হেফাজত সরকারের সংগে যোগাযোগ করা হলে হাটহাজারিস্তানের নায়েবে আমীর আল্লামা জুনাইদ বাবুনগরী বলেন, বাংলার জমি আল্লাহর দান। আর আমরাই আল্লাহর নেয্য ওয়ারিশান। তাই আস্তে আস্তে বাংলার সকল জমিই হাটহাজারিস্তানে অন্তর্ভুক্ত হবে। নাস্তিক রেলওয়ের করাল গ্রাস হইতে আপাতত ২.৬৪ একর জমি সাইজ করিলাম। বলেন আলহামদুলিল্লাহ।

রেলওয়ের জমি চুরি করে হাটহাজারিস্তানের আয়তন বৃদ্ধি করা ঠিক হচ্ছে কিনা, এ প্রশ্নের জবাবে আল্লামা বাবুনগরী রাগারাগি করে বলেন, বাবুনগরী বংশের লোক বরাবরই সরকারী ভিটা-জমি আপন খেয়ালের জন্য এস্তেমাল করে। আমার চাচাত ভাই বাবুনাগরিক শক্তির প্রতিষ্ঠাতা আমীর, বাংলাদেশের একমাত্র নোবেল বিজয়ী অর্থনীতীবীদ ও গ্রামীন বেংকের বিতাড়িত মালিক কায়েদে নোবেল ড. মুহম্মদ ইউনূস বাবুনগরীকে দুই বতসরের অধিক কাল আগে গ্রামীন বেংকের চাকুরী হতে বাকশালের আমীর শেখের বেটী শেখ হাসিনা বিতাড়িত করিয়াছে। কিন্তু ইউনূসদা এখনও সরকারী বাড়ি দখল করিয়া বসবাস করিতেছে। কই, উহাকে লইয়া ত কুন উচ্চবাচ্চ হয় না। আমি জুনাইদ বাবুনগরী আল্লামা হওয়ায় নাস্তিকের দল আমার এই সামান্য ২.৬৪ একর জমি ভোগ লইয়া কথা বলে।

ইসলামের আলোকে নাস্তিকদের শির ধড়ের উপর থাকার কোন অধিকার নাই জানিয়ে আল্লামা জুনাইদ বাবুনগরী বলেন, নাস্তিক কারা? নাস্তিক তারাই যারা হাটহাজারিস্তানের এই ২.৬৪ একর ভুমি দখল নিয়া চিল্লাপাল্লা করে। আর ইসলাম বলেছে নাস্তিকদের কতল করতে হবে। অতএব nastekder pussy cai.

ইসলামের আলোকে জমি চুরির শাস্তি হিসাবে জুনাইদ বাবুনগরীর হস্ত কর্তন করা যাবে কিনা, এমন প্রশ্নের সরাসরি উত্তর না দিয়ে আল্লামা বাবুনগরী বলেন, এক দফে ইসলামের সকল কানুনের প্রয়গ করতে গেলে বদহজম হইতে পারে। পুলিশের উপর যেমন পুলিশি চলে না, তেমনি হেফাজতের উপর ইসলাম প্রয়গ না করাই মংগল।

হাসতে হাসতে বাবুনগরী বলেন, অতিরিক্ত ইসলাম সাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। লাইনে আসুন।

April 15, 2014

কষ্ট করলে কেষ্ট্র মিলে: ফখা

নিজস্ব মতিবেদক

বৃহত্তর জামায়াতে ইসলামীর বিএনপি শাখার আওলাদে আমীর, জাতীয়তাবাদী শক্তির ভবিষ্যত মালিক ও একাত্তরের রেম্ব শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের যোগ্য উত্তরসুরী চিকিতসাধীন পলাতক মিষ্টার ফিপটিন পারসেন্ট তরুন নেতৃত্ব বড় গনতন্ত্র তারেক জিয়াকে ‘বাংলার ফিডাল কেষ্ট্র’ উপাধিতে ভুষিত করে বৃহত্তর জামায়াতের বিএনপি শাখার ভাঁড়প্রাপ্ত নায়েবে আমীর, জাতীয়তাবাদী শক্তির ‘কমপ্লান বয়’ ও বড় গুন্ডে কতৃক ‘হাইড এন্ড সিক’ কলংকে ভুষিত মির্জা বাড়ির বড় গৌরব মির্জা ফখরুল ইসলাম আগুনগীর ওরফে ফখা ইবনে চখা বলেছেন, কষ্ট করলে কেষ্ট্র মিলে। আমরা কষ্ট করিয়াছি তাই বড় গুণ্ডের নেয় একজন তরুন নেতৃত্বকে বাংলার কেষ্ট্র রুপে পাইছি। উনি না থাকলে সকালটা এত মিস্টি হত না।

সোমবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবে বৃহত্তর জামায়াতের বিএনপি শাখার ছাত্র উপশাখা ছাত্র দল আয়জিত এক প্রতিবাদ অনুষ্ঠানে ফখা ইবনে চখা এ কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, বৃহত্তর জামায়াতের শাসন আমলের পাচটি বতসর ছিল এই বাংলার বুকে সর্বাপেক্ষা ভাল সময়। শায়েস্তা খাঁর আমলে টেকায় আট মন চাউল পাওয়া যাইত। কিন্তু আমাদের বাংলার কেষ্ট্রকে আট মন চাউলের জন্য কুন টেকাই খরচ করতে হইত না। কারওয়ানবাজার হতে চাউলের কারবারীরা বিনা টেকায় উনাকে মাসে আট মন করিয়া পুলাওয়ের চাউল দিয়া যাইত।

আবেগঘন কণ্ঠে ফখা বলেন, কিন্তু চিরদিন কাহারও যায় না সমান। ভয়াল এক এগারর সময় বাংলায় চাউলের দর এক এগারতে ঠেকল। তখন বড় গুণ্ডের খোরাকির একটি চাউলের দর হইয়া গেল এগার টেকা। রক্ত ললুপ জেনারেল মইন আসিয়া বড় গুণ্ডেকে পিটাইয়া পুটু ফাটাইয়া দিল। আছিলেন শ্রী কেষ্ট্র, হইয়া গেলেন ফাটা কেষ্ট্র।


বড় গুণ্ডে বাংলার কেষ্ট্র

হুহু করে কেদে উঠে আগুনগীর বলেন, আমার বয়স হইছে। আগের মত বড় গুণ্ডের খেদমত করতে পারি না। গত বতসর আত্ম জীবনী পুস্তক লিখার কাজে বেস্ত আছিলাম বলিয়া ঠিকমত মনির পুড়াইতে পারি নাই। তাই উনি রাগ করিয়া আমায় লনডন হতে হাইড এন্ড সিক বলিয়া গালি দিছেন। কবে যে ভাঁড়প্রাপ্ত নায়েবে আমীর হতে পুর্ন কালীন নায়েবে আমীর পদে প্রমশন পাব, জানি না। কিন্তু বাংলার কেষ্ট্রকে সংসদে তোফায়েল আহাম্মক বলিয়া গালি দিলে আমি চুপ করিয়া থাকতে পারি না।

অশ্রু মুছে মির্জা ফখরুল বলেন, গত সংসদে যখন আমরা তিরিশটি সীট লইয়া উপস্থিত আছিলাম, তখন ভরা সংসদে শাম্মী পাণ্ডে বাকশালকে চোতমারানী বলিয়া গালি দিছিল। তোফায়েল শুদু আহাম্মক বলায় এইবার মাফ করিয়া দিলাম। কিন্তু যদি আমাদিগের নয়নের মনি বড় গুণ্ডে বাংলার কেষ্ট্রকে সে কুন দিন চোতমারানী বলিয়া গালি দেয়, আমার একটি কিলও মাটিতে পড়িবে না। কমপ্লান বয়ের সংগে মস্তানী চলবে না, এই আমি কয়ে রাখলুম।

%d bloggers like this: